‘এই চা-ওয়ালার সঙ্গে মমতা দিদির সম্পর্ক খারাপ কেন?’

০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৮:১৩

‘উত্তরবঙ্গের সঙ্গে আমার চায়ের সম্পর্ক। আপনারা চা উৎপাদন করেন, আমি চা তৈরি করি। আর এই চা-ওয়ালার সঙ্গে মমতা দিদির এত খারাপ সম্পর্ক কেন?’

আজ শুক্রবার পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চলের ময়নাগুড়ির চুড়াভান্ডার জনসভায় এসে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এভাবেই বলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

মোদি বলেন, ‘বিজেপি কর্মীরা ত্রিপুরায় লাল ঝান্ডা উপড়ে ফেলেছে, সেখানে এখন সুখ-শান্তি বিরাজ করছে। পশ্চিমবঙ্গেও আগামী দিনে তাই হবে।’

নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘ভারতের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো মুখ্যমন্ত্রী ধরনায় বসেছেন, যারা গরিব ও মেহনতি মানুষের টাকা লুট করেছেন তাদের জন্য। যারা মেহনতি মানুষদের টাকা লুট করেছেন, তাদের রক্ষা করছেন মমতা।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে বলেন, ‘বাংলার মানুষের একটাই প্রশ্ন, চিটফান্ডের তদন্তে আপনি কেন ভয় পাচ্ছেন? চিটফান্ডের শিকার প্রত্যেককে আমি জানাতে চাই, আপনাদের টাকা যারা লুট করেছে, তাদের কখনই এই চৌকিদার সফল হতে দেবে না। পশ্চিমবঙ্গে গরিব মানুষের কষ্ট করে জমানো টাকা যারা চুরি করেছে, তাদের বাঁচাচ্ছেন মমতা দিদি।’  তিনি দাবি করেন, ‘আমরা বিদেশ থেকে অপরাধীদের ফেরাচ্ছি। আর মমতাদি সেখানে দাঁড়িয়ে লুটবাজদের রক্ষা করছেন।’

মোদি কটাক্ষ করে বলেন, ‘মমতা তো দিদি, কিন্তু পশ্চিমবঙ্গে দাদাগিরি চালাচ্ছে অন্য কেউ। জগাই মাধাই রাজ্য চালাচ্ছে।’ পশ্চিমবঙ্গ  সরকার বাংলার মাটির বদনাম করছে বলেও অভিযোগ করেন মোদি। তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ সংস্কৃতির জন্য পরিচিত ছিল, কিন্তু আজ সেই পশ্চিমবঙ্গ হিংসার জন্য সারা দেশে আলোচিত হচ্ছে।’ 

ভারতে আগামী লোকসভা নির্বাচন প্রসঙ্গে মোদি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বাংলার মানুষ ট্রেইলর দেখেছে। মনে রাখবেন, আপনাদের একটা ভোটই কেন্দ্রে মজবুত সরকার করবে।’ মোদি এদিন দাবি করেন, ‘কেন্দ্রের আমাদের সরকার ভারত-বাংলাদেশের সীমান্ত সমস্যা মিটিয়েছে। এই কেন্দ্রীয় সরকারের আমলেই ভারতের সঙ্গে বাংলাদশের যোগাযোগ ব্যাবস্থার অনেক উন্নতি ঘটে চলেছে।’