রাশিয়ায় একদিনে ৮৩৯ বিক্ষোভকারী আটক

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:২৫

অনলাইন ডেস্ক
রাশিয়ায় চাকরিতে অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনার প্রতিবাদে দেশটির বিভিন্ন স্থান থেকে আট শতাধিক বিক্ষোভকারী আটক। ছবি : সংগৃহীত

রাশিয়ায় চাকরিতে অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনার প্রতিবাদ করায় দেশটির বিভিন্ন স্থান থেকে আট শতাধিক বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাশিয়াভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন ওভিডি-ইনফো।

গতকাল রোববার রাজধানী মস্কোসহ রাশিয়ার ৮০টির বেশি শহরে অনুষ্ঠিত সমাবেশগুলোতে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। সে সময় ওই আটকের ঘটনা ঘটে বলে ওভিডি-ইনফোর বরাত দিয়ে আজ সোমবার বিবিসি জানায়।

কারাগারে অন্তরীণ বিরোধীদলীয় নেতা আলেক্সেই নাভালনির আহ্বানে এ বিক্ষোভ আয়োজিত হয়। নাভালনি চাকরিতে অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর সরকারি ওই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করে আসছিলেন। গত মাসে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভের নিয়মভঙ্গের দায়ে দেশটির আদালত তাঁকে ৩০ দিনের কারাদণ্ড দেন।

ওভিডি জানায়, ১৯টি শহর থেকে মোট ৮৩৯ জনকে আটক করা হয়। সবচেয়ে বেশি আটকের ঘটনা ঘটে সেন্ট পিটাসবার্গে, সেখান থেকে ৩৫৪ জনকে আটক করা হয়। আরেক শহর ইয়েকাটারিনবার্গ থেকে আটক করা হয় ১২৯ জনকে। যদিও মস্কো বলছে, ৩৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বয়স বাড়ানোর সরকারি ওই পরিকল্পনা অনুসারে ২০১৯ থেকে ২০৩৬ সালের ভেতর অবসরের বয়সসীমা ক্রমান্বয়ে বেড়ে পুরুষদের জন্য হবে ৬০ থেকে ৬৫ বছর এবং নারীদের জন্য ৫৫ থেকে ৬০। নারীর বয়সসীমা শুরুতে ৬৩ বছর পর্যন্ত বাড়ানোর কথা ভাবলেও পড়ে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সে পরিকল্পনা শিথিল করেন।

চাকরির বয়সসীমা বাড়ানোর প্রস্তাবটি সংসদে উত্থাপিত হয়েছে। এ পরিকল্পনা পুতিনের জনপ্রিয়তাকে অনেক কমিয়ে দিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।