কেনিয়ার প্রেসিডেন্টকে ‘বানর’ বলায় চীনা নাগরিক গ্রেপ্তার

০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:৩৮

কেনিয়ার প্রেসিডেন্ট উহুরু কেনিয়াত্তা ও নাগরিকদের ‘বানর’ বলে গালি দেওয়ায় এক চীনা নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। কেনিয়া থেকে তাঁকে বের করে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে পুলিশ বিভাগ।

গতকাল বৃহস্পতিবার কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে টিভি চ্যানেল সিজিটিএনের (চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক) একটি স্টুডিও থেকে লিউ জিয়াকি নামের ওই চীনা নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়।

একটি ভিডিওতে দেখা যায়, লিউ তাঁর মালিকানাধীন একটি মোটরসাইকেল দোকান থেকে কেনিয়ার এক কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করার হুমকি দিচ্ছেন এবং গালিগালাজ  করছেন। কর্মচারীর গোপনে করা সেই ভিডিওচিত্রের সূত্র ধরেই লিউকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ভিডিওতে কেনিয়াবাসীকে ‘মিসকিন, কালো আর দুর্গন্ধযুক্ত’ মন্তব্য করে দম্ভের সঙ্গে লিউ বলেন যে, তাকে (কর্মচারীকে) চাকরিচ্যুত করলেও সে (কর্মচারী) কিছুই করার ক্ষমতা রাখে না।

শুধু তাই নয়, ‘ফকির, কালো আর দুর্গন্ধযুক্ত’ কেনিয়াবাসীর মধ্যে সে দেশের প্রেসিডেন্টও পড়ে বলে মন্তব্য করেন লিউ। কেনিয়াবাসী কত নির্বোধ, নানাভাবে তা বলার চেষ্টা করে।

ভিডিওতে কর্মচারীটিকে দেখা যায় বাজে আচরণের জন্য প্রতিবাদ করতে।

‘প্রত্যেকেই, প্রত্যেক কেনিয়াবাসীই বানরের মতো। এমনকি উহুরু কেনিয়াত্তাও,’ বলেন লিউ জিয়াকি। তিনি আরো বলে, ‘আমি তোমাদের পছন্দ করি না বানর-মানুষ, (তোমাদের গা থেকে) বাজে গন্ধ আসে, আর (তোমরা) উজবুক আর কালো।’ কেনিয়ায় তিনি কেবল টাকা বানাবার জন্যই থাকেন বলে উল্লেখ করেন।

সিজিটিএন স্টুডিও থেকে লিউকে গ্রেপ্তারের কয়েক ঘণ্টা পর ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ে। সিজিটিএন জানায়, পুলিশ স্টুডিও থেকে ১৩ কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করেছে।

কেনিয়ার কিয়াম্বু বিভাগের শহর রুইরুতে সনলিঙ্ক লিমিটেড নামে একটি মোটরসাইকেল বিক্রির দোকান আছে লিউ জিয়াকির।