Beta

সাপের দংশনে মৃত কুকুরকে কেন এই বিরল সম্মান!

৩১ আগস্ট ২০১৮, ১২:১৭

অনলাইন ডেস্ক

দক্ষিণ কোরিয়া, যেখানে রীতিমতো কুকুরের মাংস খাওয়া হয়, সেই দেশে সাপের দংশনে মারা যাওয়া এক কুকুরকে বিরল সম্মাননা দিতে যাচ্ছে দেশটির পুলিশ বিভাগ।

সাত বছর বয়সী জার্মান শেফার্ড গোত্রের কুকুর ‘ল্যারি’কে আগামী মাসে ওই সম্মাননা জানানো হবে বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের খবরে জানানো হয়েছে।

জানা যায়, ল্যারি দক্ষিণ কোরিয়ার পুলিশ বিভাগের ডগ স্কোয়াডের সদস্য। গত জুলাই মাসে ল্যারি দেশটির উত্তর চাংচেয়ং প্রদেশের একটি পর্বতে নিখোঁজ এক ব্যক্তির সন্ধানের কাজে নিযুক্ত ছিল। সে সময় পেছন দিকের বাঁ পায়ে সাপের ছোবল খায় ল্যারি, আর তার পরই বিষক্রিয়ায় মারা যায় সে।

দেগু মেট্রোপলিটন পুলিশ এজেন্সি তাদের এক বিবৃতিতে দাবি করে, সারা বিশ্বে ল্যারিই প্রথম কোনো কুকুর, যে কি না দায়িত্বরত অবস্থায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর শিকার।

গন্ধ শুঁকে বিভিন্ন জিনিস উদ্ধার করতে অনেক দক্ষ ছিল ল্যারি। ২০১২ সালে পুলিশ বাহিনীতে নিয়োগ পাওয়ার পর থেকে ৩৯টি অপরাধ মামলা ছাড়াও ১৭০ জনের বেশি নিখোঁজ মানুষকে উদ্ধারে পুলিশকে সাহায্য করে ল্যারি। শুধু তাই নয়, গত বছর ৭০ সেন্টিমিটার মাটির নিচে পুঁতে রাখা এক নারীর মরদেহ চিহ্নিত করে অমীমাংসিত এক হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচনে মুখ্য ভূমিকা পালন করে সে।  

গত মাসেই নানা আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে ল্যারিকে সমাধিস্থ করা হয় বলে সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানান দেশটির এক পুলিশ অফিসার। ‘রোম ফ্রিলি ইন হেভেন  (স্বর্গে স্বাধীনভাবে ঘুরে বেড়াও)’ ক্যাপশন লেখা অনেকগুলো আলোকচিত্রে ফুলের জলসার মাঝে ল্যারিকে দেখতে পাওয়া যায়।

ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরো জানান, সাফল্যের তালিকার পরিপ্রেক্ষিতে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে ‘ল্যারির সম্মানে’ একটি ব্রোঞ্জপদক অনুমোদন করা হয়। আগামী মাসে তার সম্মানে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্থানীয় পুলিশ সদর দপ্তরে ওই পদকটি ঝোলানো হবে বলে উল্লেখ করেন তিনি। 

দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রতিবছর প্রায় ১০ লাখ কুকুর মানুষের খাবারে পরিণত হয়। দেশটিতে কুকুরের সেদ্ধ মাংসকে গণ্য করা হয় উপাদেয় খাদ্য হিসেবে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement