Beta

রোহিঙ্গা সংকট

‘সু চির পদত্যাগ করা উচিত ছিল’

৩০ আগস্ট ২০১৮, ১৩:২৩ | আপডেট: ৩০ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৫০

অনলাইন ডেস্ক

জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের বিদায়ী প্রধান জেইদ রাদ আল হুসেইন বলেছেন, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের ওপর সামরিক বাহিনীর সহিংসতা চালানোর ঘটনায় অং সাং সু চির পদত্যাগ করা উচিত ছিল।

আজ বৃহস্পতিবার বিবিসিকে জেইদ রাদ আল হুসেইন বলেন, শান্তিতে নোবেলজয়ী সু চি যেভাবে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের অজুহাতকে ন্যায্যতা দেন তা ‘ভয়ঙ্কর হতাশাব্যাঞ্জক’।

গত সোমবার জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশনের প্রকাশিত এক তদন্ত প্রতিবেদনে মিয়ানমারের সেনাপ্রধানসহ ছয় সামরিক কর্মকর্তার যুদ্ধাপরাধ ও গণহত্যার দায়ে বিচারের মুখোমুখি করার আহ্বান জানানো হয়।

এদিকে, মিয়ানমার সরকার গণহত্যার কথা অস্বীকার করে বলেছে, মানবাধিকার লংঘনের ব্যাপারে দেশটি জিরো টলারেন্স (শূন্য সহনশীল) নীতি অনুসরণ করে।

জাতিসংঘের প্রতিবেদনে রোহিঙ্গাদের ওপরে পরিচালিত সহিংসতার ব্যাপারে ব্যর্থতার দায়ে সু চির সমালোচনা করা হয়।

বিবিসিকে আল হুসেইন বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুতে তিনি (সু চি) কিছু একটা করার মতো অবস্থানে ছিলেন। তা না করে প্রয়োজনে তিনি একেবারে নীরব থাকতে পারতেন, কিংবা আরো ভালো হতো যদি তিনি পদত্যাগ করতে পারতেন।

আল হুসেইনি বলেন, ‘মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র হওয়ার প্রয়োজন তাঁর ছিলো না।’ তিনি আরো বলেন, ‘(সেনাবাহীনির উদ্দেশ্যে) তিনি বলতে পারতেন, দেখো, আমি তোমাদের নামমাত্র নেতা হতে রাজি আছি, কিন্তু তাই বলে এই পরিস্থিতিতে নয়।’

গত বছরের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী দেশটির বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী বৌদ্ধপ্রধান রাখাইন রাজ্যে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর দমন অভিযান শুরু করে। এরপর সাত লক্ষাধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে। এর আগে থেকেই বিভিন্ন সময় পালিয়ে আসা চার লক্ষাধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছিল। সব মিলিয়ে বর্তমানে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশের আশ্রয়ে রয়েছে।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement