Beta

ভোট জালিয়াতি হয়েছে : নওয়াজ শরিফ

২৭ জুলাই ২০১৮, ১২:৩৩ | আপডেট: ২৭ জুলাই ২০১৮, ১২:৪৭

অনলাইন ডেস্ক

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন নিয়ে প্রথম প্রতিক্রিয়ায় নির্বাচনে ভোট চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন কারাবন্দি  সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। তাঁর দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) নিবাচনে ৬৩টি আসনে জয় পেয়েছে। সাবেক ক্রিকেট তারকা ইমরান খানের দল পিটিআই ১১০টি আসনে জয় পেয়ে এগিয়ে রয়েছে।

আজ শুক্রবার পাকিস্তানের ইংরেজি দৈনিক ডন জানায়, গতকাল বৃহস্পতিবার কারাগারে নিজ দল ও পরিবারের লোকেরা নওয়াজ শরিফের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এ অভিযোগ করেন।

আদিয়ালা কারাগারে দর্শনার্থীদের সঙ্গে কথা বলার সময় সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এই জালিয়াতি করা দূষিত আর সন্দেহজনক নির্বাচনী ফল আগামীতে দেশের রাজনীতিতে খারাপ প্রভাব ফেলবে।

দুর্নীতির দায়ে বর্তমানে কারাগারে আছেন নওয়াজ শরিফ, তাঁর মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ ও অবসরপ্রাপ্ত মেয়েজামাই ক্যাপ্টেন মুহাম্মাদ সাফদার।

সাক্ষাতের সময় নওয়াজ শরিফের ভাই শাহবাজ শরিফ, মরিয়মের ছেলেমেয়ে ও দলের বেশ কিছু নেতা উপস্থিত ছিলেন।

নওয়াজের সঙ্গে সাক্ষাৎ করা  দলের একাধিক নেতার সূত্রে জানা যায়, নওয়াজ শরিফ মনে করেন, ২০১৩ সালের নির্বাচনের চেয়ে এবারের নির্বাচনে বরং ইমরান খানের দলের অবস্থান তুলনামূলকভাবে দুর্বল ছিল।

নওয়াজ শরিফ ও শাহবাজ শরিফ একান্তে প্রায় আধাঘণ্টার বেশি সময় বৈঠক করেন বলে জানা যায়। বৈঠকে নির্বাচন-পরবর্তী দেশের পরিস্থিতি বিষয়ে আলাপ-আলোচনা হয়।

ডনের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে পিএমএল-এন নেতা শাহবাজ শরিফ বলেন, জেলখানায় নওয়াজ শরিফকে কোনো সুবিধা দেওয়া হয়নি। তাঁকে যে ঘরে রাখা হয়েছে, সেখানে কোনো শীতাতপ নিয়ন্ত্রণেরও ব্যবস্থা নেই। অথচ দর্শনার্থীদের জন্য নির্ধারিত ঘরে ঠিকই সে ব্যবস্থা আছে।

শাহবাজ শরিফ আরো বলেন, নিজের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে নওয়াজ কোনো মন্তব্য না করলেও তাঁকে দেখেই বোঝা যাচ্ছিল যে তাঁর স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালো নয়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement