Beta

ইন্দোনেশিয়ায় হামলা, আবারও ‘আত্মঘাতী পরিবার’

১৪ মে ২০১৮, ১৮:৪৭

অনলাইন ডেস্ক
বোমা হামলার পর পুলিশের ওই দপ্তরের সামনে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়। ছবি : রয়টার্স

ইন্দোনেশিয়ায় আবারও আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। সুরাবায়া শহরে পুলিশের সদর দপ্তরে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারী তিনজন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। তিনজন একই পরিবারের সদস্য।

ইন্দোনেশিয়ার সংবাদ মাধ্যম জাকার্তা পোস্ট জানিয়েছে, হামলায় দুটি মেয়ে শিশু আহত হয়েছে। পুলিশের ধারণা ওই দুই শিশু ওই আত্মঘাতী পরিবারেরই সদস্য।

ওই ঘটনায় চার পুলিশ কর্মকর্তাসহ ১০ জন আহত হয়েছে।

গতকাল রোববারই সুরাবায়া শহরেই আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। তিনটি গির্জায় এসব বোমা হামলা হয়। এসব হামলাও একটি পরিবারের সদস্যরাই মিলে করেছে বলে জানায় পুলিশ।

সংবাদ মাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, আজ সোমবার সকালে স্থানীয় সময় আনুমানিক ৮টা ৫০ মিনিটের দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পূর্ব জাভা প্রদেশ পুলিশের প্রধান মাকফুদ আরিফিন জানান, গতকাল ও আজ এ দুদিনে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৫ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে ১৩ জনই হামলার জন্য দায়ী। তিনটি পরিবার এসব আত্মঘাতী বোমা হামলা করে বলে জানান মাকফুদ আরিফিন।

সুরাবায়া হচ্ছে পূর্ব জাভা প্রদেশের রাজধানী। আজ হামলা হয় সিদোরজো রিজেন্সির পুলিশের সদর দপ্তরে। প্রশাসনিক সুবিধার জন্য প্রদেশ, নগরের পাশাপাশি বিভিন্ন ‘রিজেন্সি’তে ভাগ করা হয়েছে দেশটিকে।

জাকার্তা পোস্ট জানায়, আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী তিনজনের মধ্যে ছিল বাবা, মা ও ছেলে। ছেলেটি ওই পরিবারের বড় সন্তান। পুলিশের ধারণা, তাঁদের পরিকল্পনা ছিল পুলিশ দপ্তরটি উড়িয়ে দেওয়া।

মাকফুদ জানান, বোমা নিয়ে পাঁচজনের ওই পরিবার পুলিশ দপ্তরে হামলা করে। শিশুদের মোটর সাইকেলে বসিয়ে বোমাসহ ওই দপ্তরের সামনে আসে তাদেরই বাবা ও মা।

পুলিশ জানিয়েছে, আর কোনো পরিবার আছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ রকম একটি পরিবারের সন্ধানও পেয়েছে পুলিশ যারা সম্প্রতি সিরিয়া থেকে নিজ দেশে ফেরত এসেছে। সেখানে জঙ্গি সংগঠন আইএসের সঙ্গে পরিবারটি সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে ধারণা পুলিশের। তবে পরিবারটির পরিচয় প্রকাশ করেনি তারা।

গির্জায় ও পুলিশ দপ্তরে হামলাকারী পরিবারগুলোর বাবা ও মায়েরা উগ্রপন্থার সঙ্গে জড়িত ছিল বলে দাবি করেছে পুলিশ।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement