Beta

স্বামী বা সঙ্গীর সহিংসতা থেকে বাঁচাবে কুকুর

০৫ মে ২০১৮, ১৭:২৫

অনলাইন ডেস্ক

নারীদের সাবেক বা বর্তমান সহিংস সঙ্গীদের হাত থেকে বাঁচাতে পাহারাদার কুকুর সরবরাহ করছে একটি সংস্থা। স্পেনভিত্তিক এই সংস্থাটির দেওয়া এই কুকুরগুলো বিশেষভাবে প্রশিক্ষিত।

স্পেনে পারিবারিক সহিংসতা একটা বড় সমস্যা। দেশটিতে প্রতি মাসেই গড়ে চারজন নারী সঙ্গীদের হাতে খুন হন। স্পেনের জাতীয় পরিসংখ্যান ইনস্টিটিউটের দেওয়া তথ্য থেকে এমনটাই জানা যায়।

প্রচুর সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন এবং সরকারি পদক্ষেপের পরও এই সমস্যার সমাধান করা যাচ্ছে না। অনেক নারীই তাদের সাবেক স্বামী বা সঙ্গীদের ভয়ে পালিয়ে বেড়ান। আর তাই এই সংস্থা নিল এই অভিনব পদক্ষেপ।

কুকুরের সাহায্য নেওয়া এক নারী গেমা আবাদ। তিনি বলেন, আমি ২০১৩ সাল থেকে পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয়ে আসছি। আমার ওপর ভয়ংকর আক্রমণ করা হয়েছিল। মৃত্যুর খুব কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিলাম। এরপর থেকেই আমি বাঁচার জন্য যুদ্ধ করে আসছি। কেননা, যেকোনো সময় সেই আক্রমণকারী আবার আসতে পারে।’

কাঁদতে কাঁদতে গেমা আবাদ বলেন, ‘আমার মতো পারিবারিক সহিংসতার শিকার নারীদের জীবনকে আমি যুদ্ধে একজন সৈনিকের সঙ্গে তুলনা করি। পৃথিবীতে নারীদের খুব কম জায়গা রয়েছে, যেখানে তারা নিরাপদ বোধ করে। এই বিশাল শহর আর বিশাল পৃথিবীতে আপনিই সবার লক্ষ্যবস্তু।’

গেমা আবাদ বলেন, ‘একবার আমি বের হলাম। আমার আক্রমণকারী বাইরে অপেক্ষা করছিল। আমার কুকুরও আমার সঙ্গেই ছিল। সে আমাকে দেখলোএবং ঘুরে চলে গেল। কারণ এখন আমি তাঁর চাইতে শক্তিশালী।’

পাহারাদার কুকুরদের এই কোম্পানি নারীদের কাছ থেকে কোনো টাকা নেয় না। এই পর্যন্ত প্রায় ৪০ জন নারী এই কোম্পানি থেকে কুকুর নিয়েছেন।

এই সংস্থার এক কর্মী বলেন, ‘আমরা কুকুরগুলোকে হিংস্রতা প্রতিরোধে প্রশিক্ষণ দেই। এমনকি ওইসব নারীকেও যুদ্ধকৌশল শেখাই। যেন, বাস্তব জীবনে গিয়ে তাঁরা তাঁদের জীবন রক্ষা করতে পারেন।’

আমেরিকাতে এই প্রকল্প দুই বছর আগে শুরু হয়।

আরেক ভুক্তভোগী নারী বলেন, ‘আমি মনে করি, তিন বছর আগের আমেরিকা এখন একটা ইতিহাস মাত্র। এখন আমি একেবারেই নতুন এক মানুষ। তিন বছর আগে আপনি যদি আমাকে জিজ্ঞেস করতেন, আমি বলতাম, অসম্ভব। আর কেউ কখনো আপনাকে আঘাত করতে পারবে না, এটা অসাধারণ এক অনুভূতি। আমি যখন ৫টায় ঘর থেকে বের হই। শত্রু তখন হয়তো সেখানেই আছেন।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement