Beta

ঘুষ লেনদেনের দায়ে ফাঁসছেন নেতানিয়াহু

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৮:৫৫ | আপডেট: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:২৯

বিবিসি
ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ছবি : রয়টার্স

ঘুষ লেনদেনের মামলায় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে অভিযুক্ত করতে যাচ্ছে দেশটির পুলিশ।

এক বিবৃতিতে ইসরায়েল পুলিশ জানায়, ঘুষ, প্রতারণা এবং অবৈধভাবে ক্ষমতার ব্যবহারের দুটি পৃথক মামলায় নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে যথেষ্ট তথ্যপ্রমাণ তাদের হাতে আছে। তাই মামলার প্রক্রিয়া এগিয়ে নিতে অ্যাটর্নি জেনারেলের বরাবর একটি চিঠিও দিয়েছেন তাঁরা।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ঘুষের বিনিময়ে নিজের ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের বিভিন্ন সময় সুযোগ-সুবিধা দেওয়া এবং গণমাধ্যমকে নিজের পক্ষে প্রচারণা চালাতে বাধ্য করেছিলেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী। 

তবে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেওয়া বক্তব্যে এ অভিযোগ সরাসরি প্রত্যাখ্যান করে নেতানিয়াহু বলেন, ভিত্তিহীনভাবে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলা হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আমি যা করেছি, সব ইসরায়েলের স্বার্থের জন্যই করেছি। আমি এখন পর্যন্ত করেছি এবং ভবিষ্যতেও করব।’ 

আলজাজিরা বলছে, নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে দুটি দুর্নীতি মামলার তদন্ত করা হচ্ছে। ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছে, প্রথম মামলাটিতে নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক সুবিধা আদান-প্রদানের জন্য ধনী ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে উপহার নিয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে। 

এক বিবৃতিতে পুলিশ জানায়,  নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে  ঘুষ, জালিয়াতি ও বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগের  প্রয়োজনীয় প্রমাণ রয়েছে। তাঁর নেওয়া  দামি মদ, পোশাক, অলংকারসহ অন্যান্য উপহারের দাম প্রায় দুই লাখ ৮০ হাজার ডলার। 

আরেকটি মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে দুর্বল করতে সংবাদমাধ্যমের ইতিবাচক কাভারেজের জন্য একটি পত্রিকার সঙ্গে ঘুষ লেনদেন করেছেন নেতানিয়াহু।

আলজাজিরা বলছে, যদিও এখন পর্যন্ত এসব অভিযোগ অস্বীকার করে নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন নেতানিয়াহু। এসব অভিযোগ গ্রহণ করা হবে কি না, তা নির্ভর করছে দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেলের ওপর। 

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement