Beta

জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তর করছে গুয়েতেমালা

২৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৯:২৭ | আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৯:৩০

অনলাইন ডেস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বীকৃতির সঙ্গে সহমত পোষণ করে নিজেদের দূতাবাস ইসরায়েলের রাজধানী তেলআবিব থেকে ‘বিতর্কিত’ জেরুজালেমে সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে মধ্য আমেরিকার দেশ গুয়েতেমালা।

দেশটির প্রেসিডেন্ট জিমি মোরালেস সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে আলোচনার পরপরই তিনি এই নির্দেশ দিয়েছেন।

জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে ট্রাম্পের স্বীকৃতির প্রশ্নে গত সপ্তাহে জাতিসংঘে বিশ্বের যে সাতটি মাত্র দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষাবলম্বন করে ভোট দিয়েছে, গুয়েতেমালা তার মধ্যে একটি।

বিপক্ষে ভোট দিলে অর্থনৈতিক সাহায্য বন্ধ করাসহ নানা হুমকি-ধমকি আর হুঁশিয়ারির পরও জাতিসংঘের সেই বৈঠকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ভোট দেয় বিশ্বের ১২৮টি দেশ। ভোটাভুটিতে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে ভোট দেয় মাত্র সাতটি দেশ। তবে ভোটাভুটিতে অনুপস্থিত ছিল ৩৫টি দেশ। যদিও গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, এসব দেশ যুক্তরাষ্ট্রের ভয়েই অনুপস্থিত ছিল। গুয়েতেমালায় যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাপক প্রভাব রয়েছে এবং দেশটি বেশ ভালো মার্কিন সাহায্য পায়।

প্রেসিডেন্ট জিমি মোরালেস বলেন, দূতাবাস সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু করে দেওয়ার জন্য তিনি এরই মধ্যে নির্দেশ দিয়েছেন। ইসরায়েলের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্কের কথাও বলেন তিনি।

জেরুজালেম মুসলিম, খ্রিস্টান ও ইহুদি সবার কাছেই পবিত্র নগরী হিসেবে স্বীকৃত। এর অধিকার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ফিলিস্তিনি মুসলমান ও ইসরায়েলের ইহুদিদের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে। সম্প্রতি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস স্থাপনের ঘোষণা দেন।

যুক্তরাষ্ট্রের এই ঘোষণার পর থেকেই ফিলিস্তিনিজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। দেশটির পশ্চিম তীর, গাজায় ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে একাধিক ফিলিস্তিনি নিহত ও কয়েক শতাধিক আহত হন।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement