Beta

পানামার পর প্যারাডাইস, ক্ষমতাবানদের কেলেঙ্কারির নয়া তথ্য

০৬ নভেম্বর ২০১৭, ১১:২০ | আপডেট: ০৬ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৩৬

বিবিসি

বড় বড় দুর্নীতিতে বারবারই উঠে এসেছে বিশ্বের রথী-মহারথীদের নাম। কিছুদিন আগে ফাঁস হওয়া পানামা পেপারসে মুখোশ খুলে গেছে অনেক বিশ্বনেতার। এর জের ধরে ক্ষমতা থেকে সরে যেতে হয়েছে কয়েকজন রাষ্ট্রপ্রধান ও সরকারপ্রধানকে। এই পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির রেশ কাটতে না-কাটতেই বিশ্ববাসীর সামনে এবার উঠে এলো আরেকটি কেলেঙ্কারি।

ব্রিটেনের রানি এলিজাবেথ, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোসহ চমকে দেওয়ার মতো ক্ষমতাধর বিভিন্ন মানুষের নাম থাকা এই কেলেঙ্কারির নাম দেওয়া হয়েছে ‘প্যারাডাইস পেপারস’।

স্থানীয় সময় রোববার এক কোটি ৩৪ লাখ নথিসমৃদ্ধ এই প্যারাডাইস কেলেঙ্কারির তথ্য সামনে আনে জার্মান সংবাদমাধ্যম জিটডয়েচ সাইতং। গত বছর পানামা পেপারস কেলেঙ্কারিও ফাঁস করে এই সংবাদমাধ্যম।

প্যারাডাইস পেপারসের নথিগুলো খতিয়ে দেখার জন্য অনুসন্ধানী সাংবাদিকদের সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টসকে (আইসিআইজে) দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ৬৭টি দেশের প্রায় ১০০টি গণমাধ্যম সংস্থা নথিগুলো তদন্ত করে দেখছে। গণমাধ্যমগুলোর মধ্যে রয়েছে বিবিসি ও দ্য গার্ডিয়ানের নাম।

প্যারাডাইস পেপারসে বলা হয়, করের হাত থেকে বাঁচতে দেশের বাইরের বিভিন্ন স্থানে অর্থ খাটিয়েছেন বিশ্বের ১৮০টি দেশের বিত্তশালীরা। কর দিতে হয় না বা নামমাত্র কর দিয়ে বিনিয়োগ করা যায় এমন স্থানগুলোই বেছে নিয়েছেন তাঁরা। অনেকেই এসব লেনদেন করেছেন সবার চোখের আড়ালে। টাকা কামানোর জন্য এসব বিনিয়োগের সঙ্গে জড়িত চমকে দেওয়া কয়েকজনের নাম প্রকাশ করা হয়েছে। সামনে আরো নাম প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।

রোববার প্রকাশিত নথিতে নাম রয়েছে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ, ডোনাল্ড ট্রাম্প, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, জর্ডানের রানি নুর আল-হুসাইন, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন, বাণিজ্যমন্ত্রী উইলবার লুইস রস জুনিয়র, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কাছের কয়েকজনসহ বিভিন্ন দেশের প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী ও ক্ষমতাশালীর। প্রতিবেশী দেশ ভারতের বেশ কয়েকজনের নাম এসেছে প্যারাডাইস পেপারসে। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন তারকা অভিনেতা সঞ্জয় দত্তের স্ত্রী দিলনাশিন সঞ্জয়, সংসদ সদস্য রবীন্দ্র কিশোর সিনহা ও বেসামরিক বিমানমন্ত্রী জয়ন্ত সিনহার নাম।

প্যারাডাইস পেপারসে দেখা গেছে, ক্যারিবীয় অঞ্চলের কেম্যান দ্বীপ ও বারমুডায় রানি এলিজাবেথের এক কোটি পাউন্ড বিনিয়োগ করা রয়েছে। এখানে রানির ৫০ কোটি পাউন্ডের ব্যক্তিগত সম্পত্তির দেখাশোনা করছেন ডাচি অব ল্যাঙ্কাস্টার। তবে বিনিয়োগবিষয়ক কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার সঙ্গে তিনি জড়িত ছিলেন না বলে দাবি করেছেন ডাচি।

জার্মান সংবাদমাধ্যম জিটডয়েচ সাইতংকে প্যারাডাইস পেপারসের তথ্য দিয়েছে ক্যারিবীয় অঞ্চলের বারমুডাভিত্তিক আইনি সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠান অ্যাপলবাই। প্রতিষ্ঠানটি ওই অঞ্চলে বিনা অথবা নামমাত্র করে বিনিয়োগের সুযোগ করে দেয়। কেলেঙ্কারির নথি ও অন্যান্য প্রমাণ সংগ্রহ করা হয়েছে ক্যারিবীয় বিচারব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন সূত্র। অবশ্য তাদের নাম প্রকাশ করেনি জিটডয়েচ সাইতং।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement