Beta

হারিয়ে যাচ্ছে দেশ!

০৮ জুলাই ২০১৫, ২১:৪৯ | আপডেট: ০৮ জুলাই ২০১৫, ২১:৫৫

অনলাইন ডেস্ক
বিশ্বের চতুর্থ ক্ষুদ্রতম রাষ্ট্র টুভালুর সমুদ্র সৈকত। ছবি : সংগৃহীত

পৃথিবীর মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাচ্ছে একটি দেশ। আর নিজের দেশকে বিশ্বের মানচিত্র থেকে অদৃশ্য হয়ে যাওয়া থেকে বাঁচাতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতাদের সহায়তা চেয়েছেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী। যে দেশটি মানচিত্র থেকে হাওয়া হয়ে যাচ্ছে সেই দেশটির নাম টুভালু। এটি বিশ্বের চতুর্থ ক্ষুদ্রতম দেশ।

প্রশান্ত মহাসাগরের কয়েকটি দ্বীপ নিয়ে গঠিত টুভালুর মোট জনসংখ্যা ১০ হাজার। দেশটির সর্বোচ্চ স্থানটিও সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে মাত্র চার মিটার উঁচুতে। তাই জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে আছে এই দেশ।

আগামী ডিসেম্বরে প্যারিসে হতে যাওয়া জাতিসংঘের পরবর্তী জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনে নিজের দেশের পক্ষে সমর্থন আদায় করতে গতকাল সোমবার ব্রাসেলস পৌঁছলেন টুভালুর প্রধানমন্ত্রী এনেল স্পাওগা।

ব্রাসেলস টাইমসের বরাত দিয়ে ব্রিটেনের প্রভাবশালী দৈনিক দ্য ইনডিপেনডেন্ট জানিয়েছে, এনেল স্পাওগা ইউরোপের দেশগুলোকে বৈশ্বিক উষ্ণতা কমিয়ে আনতে গ্রিনহাউস গ্যাসের নির্গমন কমাতে অনুরোধ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘বিশ্বকে বাঁচাতেই আমাদের টুভালুকে বাঁচানো প্রয়োজন।’

টুভালুর প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘যদি এই দীপরাষ্ট্রটি পানির নিচে তলিয়ে যায় তাহলে সেখানেই কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের শেষ হবে না। আমি আপনাদের কাছে জানতে চাই, আমাদের ভবিষ্যৎ কী? মানুষের কল্যাণে আমাদের সবারই এক হয়ে কাজ করা উচিত।’

এনেল স্পাওগা আরো বলেন, বিশ্বের উষ্ণতা সামান্য দুই ডিগ্রি বেড়ে যাওয়াও বিশ্বের মানচিত্র থেকে টুভালুর বিলোপ হয়ে যাওয়ার কারণ হতে পারে। আমরা টুভালুর অধিবাসীদের অন্য দেশে সরিয়ে নিতে পারি। কিন্তু এটা জলবায়ু পরিবর্তনকে বন্ধ করবে না।

আর তাই টুভালুকে বাঁচাতে বিশ্বনেতাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement