Beta

১৬০ বছরের লড়াই, নদী পেল মানুষের সমান অধিকার

১৬ মার্চ ২০১৭, ১৮:৫২ | আপডেট: ২১ মার্চ ২০১৭, ১৬:২২

বিবিসি
ছবি : এএফপি

নদী ও জলকেন্দ্রিক একটি আদি জনগোষ্ঠীর মানুষের ১৬০ বছরের লড়াইয়ের পর নিউজিল্যান্ডের একটি নদীকে মানুষের সমান আইনগত  অধিকার দেওয়া হয়েছে; যা বিশ্বে এই প্রথম।   

নিউজিল্যান্ডের সংসদে একটি বিল পাস করা হয়েছে, যেখানে হোয়াংগানুই নদীকে জীবিত সত্তা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। এ খবরটা পাওয়ার পর অনেক মানুষ আনন্দে কেঁদে ফেলেন। 

নিউজিল্যান্ডের প্রধান জাতিসত্তা মাওরিরা হোয়াংগানুই নদীকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার সঙ্গে দেখে থাকেন। এখন এই নদীর স্বার্থ দেখার দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়া হয়েছে দুজন মানুষের ওপর।

নিউজিল্যান্ডের একজন মন্ত্রী ক্রিস ফিনলেসন বলেন, ‘মাওরিরা এই অধিকারটুকুর জন্য গত ১৬০ বছর ধরে লড়াই করেছে। আমি জানি, একটা প্রাকৃতিক সম্পদকে আইনগত অধিকার দেওয়ার ঘটনা অনেকের কাছে বিস্ময়কর বলে মনে হতে পারে।’

‘কিন্তু পারিবারিক ট্রাস্ট, কিংবা কোনো কোম্পানি বা ইনকরপোরেটেড সমিতিগুলোর চেয়ে এটি ভিন্ন কিছু না’, যোগ করেন মন্ত্রী।

সংসদের এই স্বীকৃতির ফলে নিউজিল্যান্ডের আদালতে এখন থেকে হোয়াংগানুই নদীর পক্ষে কৌঁসুলিরা লড়াই করতে পারবেন।

সংসদে বিলটি পাস হওয়ার খবরে মাওরি সম্প্রদায়ের লোকেরা আনন্দে কেঁদে ফেলেন। তাঁরা খুশিতে নাচগান করতে থকেন।

মাওরিদের প্রতিনিধিত্বকারী একজন সংসদ সদস্য এড্রিয়ান রুরাহে বলছেন, ‘নদীই যাদের জীবন, নদীর ওপর যারা নির্ভরশীল, সার্বিকভাবে তাদের জন্য নদীর অস্তিত্ব খুবই জরুরি।’

‘হোয়াংগানুই নদীর কথা যদি বলেন, তাহলে এই নদীর কল্যাণের সঙ্গে মানুষের কল্যাণ সরাসরিভাবে জড়িত। তাই এর স্বতন্ত্র অস্তিত্ব স্বীকার করার বিষয়টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ’, যোগ করেন সংসদ সদস্য।

নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সংসদের এই সিদ্ধান্তের মধ্য দিয়ে দীর্ঘমেয়াদি এক আইনি লড়াইয়ের অবসান ঘটল।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement