Beta

ফিলিপাইন উপকূলে রহস্যময় প্রাণী, তোলপাড়!

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৭:৩৬ | আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭, ১৭:৩৮

দ্য ডেইলি মেইল
ফিলিপাইনের দিনাগাত দ্বীপপুঞ্জের কাগদাইনাও সমুদ্র সৈকতে ভেসে আসে রহস্যময় এক প্রাণী। ছবি : ডেইলি মেইল

ফিলিপাইনের দিনাগাত দ্বীপপুঞ্জের কাগদাইনাও সমুদ্রসৈকত। স্থানীয় বাসিন্দাদের চোখে পড়ল রহস্যময় এক প্রাণী। সাদা লোমে ঢাকা ওই প্রাণীটি দেখলেই ভয় পেয়ে যেতে হয়। কোথা থেকে এলো প্রাণীটি।

গেল রোববার ওই অঞ্চলে হয় একটি শক্তিশালী ভূমিকম্প হয়। এতে সমুদ্র উপকূলে ভেসে আসে বিভিন্ন জিনিস। স্থানীয়দের ধারণা, ভূমিকম্পের জের ধরে অন্যান্য জিনিসের সঙ্গে ভেসে এসেছে কিম্ভূতকিমাকার ওই প্রাণী।

তারপর যা হওয়ার তাই হলো। রহস্যময় ওই প্রাণীটি ফ্রেমে বেঁধে সবাই তুলল সেলফি। আর সেই সেলফিগুলো পোস্ট করা হলো সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে। কেউ কেউ আবার প্রাণীটির নাম কী তা জানতে চাইল।

পোস্ট করা ওই ছবিগুলোর এলো বিভিন্ন মন্তব্য। বিভিন্ন কাল্পনিক বস্তুর পরিচয় পেতে থাকল সেটি। কেউ কেউ আবার হলিউডি ছবির বিভিন্ন চরিত্র বলে আখ্যায়িত করতে থাকল সেটিকে।

একজন মন্তব্য করেন, এটি একটি আধা-তিমি আধা-শ্বেত ভালুক হতে পারে। ১৯২৪ সালের ২৫ অক্টোবর দক্ষিণ আফ্রিকার উপকূলে নাকি এমনই এক প্রাণী ভেসে এসেছিল। ওই প্রাণীর নাম দেওয়া হয়েছিল ‘ট্রানকো’।

তবে ওই প্রাণীটিকে হলিউডি চরিত্র বা দৈত্য-দানব ভেবে যখন মশগুল, তখন আগুনে পানি ঢেলে দিলেন স্থানীয় কয়েকজন বিজ্ঞানী। তাঁরা বলছেন,  প্রাণীটি দেখে ভয় পাওয়ার কিছুই নেই। সেটি ২০ ফুট লম্বা একটি তিমির মৃতদেহের অংশ। সেটির ওজন দুই হাজার কেজি।

কিন্তু সেটি সাদা আর লোমশ কেন? তারও জবাব দিয়েছেন ওই বিজ্ঞানীরা। তাঁরা বলেছেন, তিমিটি দুই সপ্তাহ আগে মারা গেছে। তখন থেকে পচতে শুরু করে তিমিটির মৃতদেহ। পচে গিয়েই এমন বীভৎস আকৃতি ধারণ করেছে মৃতদেহটি।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement