Beta

ফ্রিল্যান্সিং শিখুন

একজন ফ্রিল্যান্সার কি একজন আদর্শ লিডার হতে পারেন?

১৬ নভেম্বর ২০১৫, ১২:৩১

আলামিন চৌধুরী ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেন ২০০৪ সালে। বর্তমানে তিনি বেসিসের অঙ্গসংগঠন বিআইটিএমের প্র্যাকটিক্যাল এসইও, ডিজিটাল মার্কেটিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের লিড ট্রেইনার হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি বাংলাদেশের একজন শীর্ষস্থানীয় ইন্টারনেট মার্কেটিং প্রফেশনাল। বিশ্বের বিভিন্ন ইন্টারনেট মার্কেটিং ফোরামের সঙ্গে জড়িত রয়েছেন তিনি।

আলামিন চৌধুরী ২০১১ সালে বেসিস আয়োজিত ‘বেস্ট ফ্রিল্যান্সার অ্যাওয়া‍র্ড’ প্রতিযোগিতায় শীর্ষস্থান অর্জন করেছিলেন এবং পরবর্তী সময়ে ২০১৩-১৪ বেসিস আউটসোর্সিং অ্যাওয়া‍র্ড প্রোগ্রামের একজন জুরি বোর্ড মেম্বার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (এসইআইপি) কর্মসূচির প্র্যাকটিক্যাল এসইও, ডিজিটাল মার্কেটিং ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং—এ তিনটি ট্র্যাকের ট্রেনিং কার্যক্রম তাঁর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হচ্ছে। মূলত যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস ও অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তির সঙ্গে কাজ করছেন তিনি।

এনটিভি অনলাইনের পাঠকের জন্য ফ্রিল্যান্সিংসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে প্রতি সোমবার নিয়মিত লিখছেন আলামিন চৌধুরী

 

একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে আপনি শুধু একজন সিইও নন, আপনি একজন সেক্রেটারি, হিসাবরক্ষক, বিক্রেতা এবং একজন ইন্টার্নও। এত সব দায়িত্ব একসঙ্গে পালন করতে গিয়ে আপনি কখনো কখনো আপনার মূল লক্ষ্যকেই ভুলে যান, যেটা আপনার জীবনের উদ্দেশ্য। আপনি যদি এ উদ্দেশ্য সফল করতে চান, তাহলে আপনার জন্য সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে একজন লিডারের দৃষ্টিকোণ থেকে চিন্তা করা।

একজন সিইও হিসেবে আপনি যা চিন্তা করবেন বা সিদ্ধান্ত নেবেন, একজন ইন্টার্ন হিসেবে আপনি কিন্তু ওইভাবে চিন্তা করবেন না, তাই তো? আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার সম্পর্কে একজন লিডারের মতো করে দেখলে এটি আপনাকে আরো বেশি সাহায্য করবে আপনার স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে, তখন আপনি আরো সক্রিয় ভূমিকা পালন করতে পারবেন।

আপনি কখন একজন আদর্শ লিডার? যখন :

১. আপনার ব্যবসা সম্পর্কে আপনার একটি সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে :

একজন ইন্টার্ন হিসেবে হয়তো বা আপনি ই-মেইল, ব্যবসার ডকুমেন্টস, ইনভয়েস, নিত্যপ্রয়োজনীয় কাজ ইত্যাদি ভুলে যেতে বা হারিয়ে ফেলতে পারেন। কিন্তু সেই আপনি আপনার ভেতরের সিইও হিসেবে যে বড় স্বপ্ন দেখছেন আপনার লক্ষ্য নিয়ে, সেই দৃষ্টিকোণ থেকে দেখলে আপনি আরো সতর্ক থাকবেন আপনার উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে। এটিই সবচেয়ে ভালো হয় যে, আপনি আপনার উদ্দেশ্যগুলো হাতে-কলমে লিপিবদ্ধ করুন এবং এগুলো নিয়ে ভালোভাবে পর্যালোচনা করুন।

আপনি আপনার নিজেকে প্রশ্ন করুন, এ উদ্দেশ্য সফল করতে হলে আপনাকে কী কী করা উচিত বা কী করা উচিত নয়। আপনার প্রতিটি পদক্ষেপ আপনাকে কোন দিকে নিয়ে যাবে, এটি বিবেচনায় রাখুন। আপনি যেকোনো প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কীভাবে নিজেকে টিকিয়ে রাখতে পারেন এবং এর জন্য আপনার এখন থেকেই কী কী করা উচিত, সে বিষয়গুলো নির্ধারণ করুন।

২. আপনি আপনার কথা অনুযায়ী প্রতিটি পদক্ষেপ সামনে রাখুন :

এখন বর্তমানে অধিকাংশ ব্যবসাই চলছে সোশ্যালি বা ডিজিটাল মাধ্যমে। কিন্তু আপনি নিজেকে পৃথক রেখে ভাবুন প্রকৃতপক্ষে আপনি কে? আপনি নিজেকে সব সময় স্বচ্ছ রাখুন, নিজের চিন্তা-চেতনাকে উন্মুক্ত রাখুন, আপনার কাজের মধ্যে আপনার চিন্তাকে প্রতিফলিত করুন।

একজন আদর্শ ফ্রিল্যান্সার সব সময় তাঁর কমিউনিটিতে স্বচ্ছ থাকার চেষ্টা করে এবং তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া কার্যক্রম ও তাঁর লেখালেখির মাধ্যমেও এই স্বচ্ছতার প্রকাশ পায়। আপনি যদি কোনো উদীয়মান ফ্রিল্যান্সার ইভেন্টে অংশগ্রহণ করেন, তাহলে এখান থেকে নোটস রাখুন এবং এ সম্পর্কে লিখুন আপনার ব্লগ বা সাইটে যেন অন্যান্য সবাই এ সম্পর্কে জানতে পারে।

বর্তমানে বিশ্বস্ততাই একটি ব্র্যান্ড, তাই আপনাকে এটিই ভালোভাবে কাজে লাগাতে হবে। আপনার ক্লায়েন্ট যদি মনে করে, সে আপনার সঙ্গে যুক্ত আছে সব সময়, তাহলেই সে ভবিষ্যতে আপনার সঙ্গেই থাকবে বা থাকার চেষ্টা করবে।

পারস্পরিক সম্পর্ক অনেক বিশাল একটি বিষয়, তাই দাম্ভিকতা না দেখিয়ে ক্লায়েন্টের সঙ্গে আপনার ব্যক্তিগত বা কাজ সম্পর্কিত ভুল-ত্রুটি বা সমস্যা নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করুন এবং তাঁর কাছে সাহায্য চাইতে কুণ্ঠিত বা ভীত হবেন না। এটি প্রথমে আপনার কাছে ভীতিকারক হতে পারে; কিন্তু এটি একসময় আর থাকবে না।

৩. ঝুঁকি গ্রহণ করুন

যেখানে আপনার ভালো লাগে এমন কোনো জায়গা থেকে বেরিয়ে আসুন এবং আপনি আপনার নিজের প্রয়োজনেই ঝুঁকি গ্রহণ করুন। কেননা, এটি আপনার বিজনেসকে আরো সামনের দিকে অগ্রসর হতে সাহায্য করবে। আপনি যেভাবে ঝুঁকি গ্রহণের চিন্তা করবেন, এটি সেভাবেই আপনার ফলাফলের ওপর প্রভাবিত হবে। আপনার অন্তরের ভেতরের একটি কথাই আপনার অনুপ্রেরণার উৎস হতে পারে বা আপনার সবচেয়ে ভালো উদ্দেশ্যর অন্তর্ঘাতক হতে পারে।

তাহলে কেনই বা আপনি আপনার মনের ভয়কে মিটিয়ে ফেলছেন না এবং ঝুঁকি গ্রহণ করে আপনার বিজনেসে সামনে অগ্রসর হচ্ছেন না?

আপনার নীতি হওয়া উচিত যেকোনো কিছুর জন্য একবারই ভীত হওয়া। কারণ বারবার ভীত হওয়া যাবে না, একবার যেটা করে ফেলেছেন, সেটি করার ভয় যেন আপনার মনে আর কাজ না করে। কারণ আপনি জানেন যে যা-ই হোক না কেন, আপনাকে আপনার লক্ষ্যে এগিয়ে যেতে হবে। কারণ, এভাবেই আপনাকে ঝুঁকি গ্রহণ করে আপনার নিজের ভয়কে জয়ে রূপান্তর করতে হবে।

৪. নিজের ওপরে নিয়ন্ত্রণ রাখুন :

আপনি কী করছেন? কী করছেন না? এবং কীভাবে করছেন? আপনার নেওয়া প্রতিটি পদক্ষেপের ওপর আপনার ব্যবসার ফলাফল নির্ভর করছে। আপনার চিন্তাধারাই এখানে মুখ্য। আপনার অভ্যন্তরের চিন্তা-চেতনাই প্রকৃতপক্ষে আপনাকে বলে দেয়, আপনার কী করা উচিত বা উচিত নয়। এটাই প্রকৃত সময় এই অদৃশ্য চেতনাকে বোঝার এবং ব্যবসায় কাজে লাগানো।

আপনি প্রতিদিন সকালে আপনার মনে কী আছে বা বলছে, এ বিষয়গুলো একটি কাগজে লিপিবদ্ধ করার অনুশীলন করুন এবং তার পর আপনার মনের ভেতরে লুকিয়ে থাকা কথাগুলো এর সঙ্গে মেলান, আমরা এটাকে বলি পরিশোধন বা বিশুদ্ধকরণ। এটা খুব দ্রুত আপনার ভালো ও মন্দ খুঁজে বের করবে এবং আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে এখান থেকে কোন বিষয়গুলো রাখা উচিত আর কোনগুলো মুছে ফেলা উচিত।

আপনার অভ্যন্তরীণ উক্তি, যেমন : ‘আমি আর্থিক সংকটে আছি’ বা ‘আমার হাতে পর্যাপ্ত সময় নেই’ বা ‘এই ক্লায়েন্ট অনেক কঠিন’—এগুলো আপনার সামনে অগ্রসর হওয়ার পথে বাধা ছাড়া আর কিছুই নয়।

আপনি চাইলে একটু ভিন্নভাবে ভেবে দেখতে পারেন, যেমন : ‘সফলতা আমার সামনেই আছে’, ‘আমি আর একটু সময় দিয়ে বা সাহস করে সামনে এগিয়ে গেলেই আমার লক্ষ্যে পৌঁছে যাবো’। এবার এগুলোকে সত্য মনে করে সামনে অগ্রসর হোন এবং সফলতা পাওয়ার চেষ্টা করুন।

আপনি যখনই বুঝতে পারবেন, আপনার চিন্তাভাবনা আপনাকে কতটা পিছিয়ে দিচ্ছে, তখনই আপনি এই বাধাগুলো জয় করতে পারবেন। আপনি আপনার সিদ্ধান্তের মালিক এবং এই আপনি আপনার অবচেতন মনেরও মালিক।

ফ্রিল্যান্সার আপনি এবং আপনার নিজের মধ্যেই এসব গুণ রয়েছে, শুধু প্রয়োজন এগুলো অর্জন করা এবং কাজে লাগানো।

যখন আপনি আপনার লক্ষ্য স্থির করে ফেলবেন, নিজেকে প্রস্তুত করবেন, ঝুঁকি গ্রহণ করবেন এবং নিজের চিন্তা-চেতনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন, আপনি তখন সারা বিশ্বের কাছে নিজেকে প্রমাণ করতে পারবেন।

মানুষ যখন আপনার মধ্যে ভিন্ন কিছু লক্ষ করবে, তখন তারা আপনার প্রতি আকৃষ্ট হবে। তাই আজই এ বিষয়গুলো গুরুত্বসহকারে গ্রহণ করুন এবং নিজেকে একজন যোগ্য লিডার হিসেবে প্রস্তুত করুন।

আগামী পর্ব ছাপা হবে ২৩ নভেম্বর, সোমবার।

আপডেট থাকুন

আপডেট থাকতে এনটিভির ভেরিফায়েড পেজে লাইক দিন : www.facebook.com/ntvdigital

শুধু প্রযুক্তির খবর পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিন : www.facebook.com/ntvtech

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement