ইউরোপে নতুন তথ্য আইন, ফেসবুক-গুগলের বিরুদ্ধে অভিযোগ

২৬ মে ২০১৮, ১০:৫৫

ইউরোপজুড়ে গ্রাহকদের তথ্য সুরক্ষায় নতুন আইন কার্যকর হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ফেসবুক, গুগল, ইনস্টাগ্রাম ও ওয়াটসঅ্যাপের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে সেবা নিতে বাধ্য করার মধ্য দিয়ে এসব প্রতিষ্ঠান গ্রাহকদের সম্মতি আদায় করছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

তথ্য সুরক্ষা নিয়ে কাজ করা ওয়েবসাইট noyb.eu-এর অ্যাক্টিভিস্ট ম্যাক্স শ্রেমস বলেন, মানুষকে স্বাধীনভাবে পছন্দ করার ক্ষমতা দেওয়া হচ্ছে না।

ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) কার্যকর হওয়া সাধারণ তথ্য সুরক্ষা বিধি (জিডিপিআর) নামের নতুন এই আইনটিতে বলা হয়েছে কীভাবে ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ এবং ব্যবহার করা যাবে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরের প্রতিষ্ঠানগুলোকেও এই আইন মানতে হবে, যদি তারা কোনো সেবা অফার করে।

noyb.eu বলছে, ‘নাও অথবা ছেড়ে দাও’ (টেক ইট অর লিভ ইট) ধরনের নীতি গ্রহণের মধ্য দিয়ে উপরোক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো জিডিপিআর আইন ভেঙেছে।

তথ্য সুরক্ষা নিয়ে কাজ করা আরো গ্রুপটি বলছে, ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ, শেয়ার ও ব্যবহারের বিষয়ে গ্রাহকরা রাজি হতে বাধ্য হয়। নতুন আইনের ফলে এগুলো সম্ভব হবে না। জিডিপিআরে এগুলো নিষেধ করা হয়েছে।

ম্যাক্স শ্রেমস বলেন, ‘অনেক ব্যবহারকারী এখনো জানেন না যে, লোকজনের সম্মতি নিতে বাধ্য করা জিডিপিআরের অধীনে নিষিদ্ধ।’

অস্ট্রিয়া, বেলজিয়াম, ফ্রান্স ও জার্মানির চার নাগরিক স্থানীয় কর্তৃপক্ষের কাছে ফেসবুক, গুগলের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো করেন।

বিবিসি জানায়, নতুন আইনের পর ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাইরের কিছু প্রতিষ্ঠান সাময়িকভাবে তাদের সেবা ইউরোপে বন্ধ রেখেছে।

তবে অন্যদের মধ্যে টুইটার নতুন করে নিয়ম চালু করেছে, যাতে মানুষ বিজ্ঞাপন এড়িয়ে যেতে পারে।

যেসব প্রতিষ্ঠান জিডিপিআর আইন ভাঙবে তাদের ১৭ মিলিয়ন ব্রিটিশ পাউন্ড (১৯১ কোটি ২২ লাখ টাকার বেশি) পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে।

ফেসবুক একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, জিডিপিআর আইন মেনে চলতে তারা ১৮ মাস ধরে প্রস্তুতি নিয়েছে।

বিবিসিকে গুগল কর্তৃপক্ষ বলেছে, ‘খুব প্রারম্ভিক পর্যায় থেকেই আমরা গোপনীয় ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা তৈরি করি এবং ইইউর সাধারণ তথ্য সুরক্ষা বিধান মেনে চলতে অঙ্গীকারবদ্ধ।’