Beta

শনির উপগ্রহে বিকশিত প্রাণ, বিশ্বাস নাসার

১৪ এপ্রিল ২০১৭, ২০:৩২

অনলাইন ডেস্ক

সৌরজগতের গ্রহ শনি নিয়ে পৃথিবীর মানুষের চিন্তার অন্ত নেই! নিজের দশা কাটিয়ে এবার শনি গুরুত্বপূর্ণ খবর দিয়েছে। নাসা জানিয়েছে, শনির এক উপগ্রহে প্রাণ বিকশিত হয়ে থাকতে পারে!

দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, মহাকাশ থেকে নাসার কাছে কিছু তথ্য-উপাত্ত এসেছে। এসব উপাত্তে দেখা যায়, শনির একটি গ্রহে প্রাণের বেঁচে থাকার পরিবেশ আছে! ওই উপগ্রহে আছে মহাসাগরের অস্তিত্ব, যা গবেষকদের আগ্রহ আরো বাড়িয়েছে।

শনির উপগ্রহ বা চাঁদের সংখ্যা ৬২টি। এর মধ্যে ষষ্ঠ বৃহত্তম চাঁদের নাম এনসেলাডাস। ওই উপগ্রহেই প্রাণের অস্তিত্ব পাওয়া যায় বলে জানা যায়। সূর্য থেকে এর দূরত্ব ৮৮৭ মিলিয়ন মাইল।

গ্রহ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডেভিড রথারি বলেন, ‘যদি জানা যায়, সৌরজগতের দুটি স্থান থেকে প্রাণের যাত্রা শুরু হয়েছে, তবে আমাদের বিশ্বাস গ্যালাক্সির অন্যান্য গ্রহ-উপগ্রহ থেকেও প্রাণের যাত্রা শুরু হয়েছে।’

এনসেলাডাসে মহাসাগরের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে, যা অবশ্য বরফে ঢাকা। এ নিয়েও কাজ শুরু করেছেন নাসার গবেষকরা। ২০১৫ সালে এসব এলাকায় মহাকাশযান সেসিনি পাঠায় নাসা। সেসিনি সেখানে হাইড্রোজেন ও কার্বন ডাই-অক্সাইডের অস্তিত্ব আবিষ্কার করে।  

এনসেলাডাস প্রথম আবিষ্কৃত হয় ১৭৮৯ সালে। ব্রিটিশ জ্যোতির্বিদ উইলিয়াম হার্শেল প্রথম একে চিহ্নিত করেন। ৩১০ মাইল ব্যাসার্ধের ওই চাঁদটি পৃথিবী থেকে ৭৯০ মিলিয়ন মাইল দূরে। 

সূর্য থেকে বহুদূরে এনসেলাডাসের অবস্থান। তবে প্রাণের অস্তিত্ব থাকলে তা সৌরনির্ভর হবে বলে বিশেষজ্ঞদের ধারণা। কোনো বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ইউরেনাসের উপগ্রহ অ্যারিয়েলে মহাসাগরের অস্তিত্ব আছে। তবে তা এখনো প্রমাণিত হয়নি।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement