Beta

টেস্ট খেলার মতো বড় মন নেই খেলোয়াড়দের?

০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২১:৩৪

ক্রীড়া প্রতিবেদক

সেই ২০০০ সালে টেস্ট ক্রিকেটে পা রাখে বাংলাদেশ। সেখানে মাত্র গতবছর টেস্ট অভিষেক হয় আফগানিস্তানের। এই সময়ে মাত্র দুটি টেস্ট খেলেছে তারা। সেক্ষেত্রে টেস্ট অভিজ্ঞতা কিংবা মাঠের পারফরম্যান্স সবকিছুতেই এগিয়ে টাইগাররা। তারপরও এই নবীন দলটির সামনে  টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম দেখায় করুণ অবস্থা বাংলাদেশের।

চট্টগ্রাম টেস্টের এখন যে অবস্থা তা দেখে এই ম্যাচের ফলাফল কী হবে সেটা যে কেউই বলে দিতে পারে। দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের লক্ষ্য ৩৯৮ রানের। জিততে হলে ইতিহাস গড়তে হবে বাংলাদেশকে। কারণ এরআগে এত রান টপকে কখনোই জিততে পারেনি লাল-সবুজের দল। কিন্তু ইতিহাস গড়ার তো দূরে থাক, দ্বিতীয়বার ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের যা অবস্থা তাতে লজ্জার হারের সামনে স্বাগতিকরা।

বোলিংয়ে ব্যর্থ, লম্বা ব্যাটিং লাইন-আপ নিয়ে ব্যাটিংয়েও চরম ব্যর্থ। মাঠে বডি ল্যাঙ্গুয়েজও ঠিক নেই। সব মিলিয়ে সব বিভাগে বেশ সমস্যায় বাংলাদেশ দল। এই সমস্যাটা আসলে কোথায়?

চতুর্থদিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেন, ‘সমস্যা অনেক জাগায় বলতে পারেন। টেকনিক্যালি সমস্যাও বলতে পারেন। যেহেতু রিস্ট স্পিনার খেলি না। সেটা লেফট বা রাইট হ্যান্ডার দুইটাই আমাদের জন্য নতুন কিছু। স্বাভাবিকভাবেই আমাদের মানিয়ে নেওয়ার একটা ব্যাপার এখানেও থাকে। আমরা যে পরিকল্পনা নিয়েছিলাম তা কাজে লাগেনি।’

অধিনায়ক আরো বলেন, ‘আসলে যতক্ষণ না আপনি সফল হচ্ছেন, পরিকল্পনা খুব একটা কাজে আসে না। যখন সফল হবেন তখন কাজে আসবে। আমি বলব না কারো সমস্যা ছিল। আমি বলব বড় মন নিয়ে খেলতে না পারাটা অনেক সমস্যার। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমরা অনেক ভয় নিয়ে খেলি, অনেক চাপ নিয়ে খেলি। আসলে দিন শেষে এটা ক্রিকেট ম্যাচ, অবশ্যই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু দুনিয়ার সব কিছুই এটা না। কিন্তু আমরা অনেক সময় এ রকম ভেবে যেটা করি যে, এত বেশি চাপ নিয়ে ফেলি নিজেদের ওপরে পারফর্ম করা আমাদের জন্য কষ্টকর হয়। যখন করতে পারি না, তখন প্রেশারটা আরো বেশি পড়ে।’

Advertisement