Beta

লর্ডসে অন্যরকম অভিষেক হচ্ছে বাংলাদেশের

০৪ জুলাই ২০১৯, ২৩:৪৬

স্পোর্টস ডেস্ক

চলমান বিশ্বকাপে নিজেদের শেষ ম্যাচ আগামীকাল মাঠে নামছে বাংলাদেশ। আগের ম্যাচে ভারতের কাছে হেরে লাল-সবুজের দলের বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায়। তবে এ ম্যাচে অন্যরকম মাইলফলক স্পর্শ করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। লর্ডসের এর আগে কখনো ওয়ানডে ম্যাচ খেলেনি টাইগাররা। সে দিক থেকে ক্রিকেটের তীর্থভূমি লর্ডসে আগামীকাল শুক্রবার ওয়ানডে অভিষেক হতে যাচ্ছে বাংলাদেশের।

অবশ্য লর্ডসের মাঠে অন্য ফরম্যাটে আগেই খেলেছে বাংলাদেশ। ২০০৫ সালে প্রথম এবং ২০১০ সালে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট খেলেছিল টাইগাররা। দুটি ম্যাচই বাংলাদেশ খেলেছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে।

২০০৫ সালের ২৬ মে ইংল্যান্ডের কাছে ম্যাচে ইনিংস ও ২৬১ রানে হারেছিল বাংলাদেশ। টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসে ১০৮ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। জবাবে ৩ উইকেটে ৫২৮ রানের বিশাল সংগ্রহ পায় ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে ৪২০ রানে পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। পিছিয়ে পড়ে ইনিংস হার এড়াতে খেলতে নেমে আবার ব্যর্থ হন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। দ্বিতীয় ইনিংসে ১৫৯ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ।

২০১০ সালের ২৭ মে দ্বিতীয়বার লর্ডসে টেস্ট খেলার সুযোগ পায় বাংলাদেশ। সে ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং বেছে নেয় টাইগাররা। ফলে প্রথমে ব্যাট করার সুযোগটা ভালোভাবে কাজে লাগায় ইংল্যান্ড। সবকটি উইকেট হারিয়ে ৫০৫ রানের বিশাল সংগ্রহ গড়ে ইংলিশরা। বাংলাদেশের পেসার শাহাদাত হোসেন রাজীব ৯৮ রানে ৫ উইকেট নেন।

এরপর নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানে অলআউট হয় বাংলাদেশ। ফলোঅনে পড়ে টাইগাররা। ওপেনার তামিম ইকবালের সেঞ্চুরিতে ইনিংস হার এড়ায় বাংলাদেশ। তামিম ১৫টি চার ও দুটি ছক্কায় ১০০ বলে ১০৩ রান করেন। তামিমের সেঞ্চুরিতে ৩৮২ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ। ম্যাচ জয়ের জন্য ১৬০ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে ২ উইকেটে ১৬৩ রান তুলে ম্যাচ জিতে ইংল্যান্ড।

এই দুটি টেস্ট ছাড়া এই ভেন্যুতে কোনো ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেনি বাংলাদেশ। লর্ডসের অভিষেকটা রঙিন করার ভালো সুযোগ বাংলাদেশের সামনে। কারণ এবারের বিশ্বকাপের শেষটা জয় দিয়েই করতে চাইছে বাংলাদেশ। তাই লর্ডসের অভিষেকেই জয় হলে, বিশ্বকাপ থেকে ভালো কিছু নিয়ে ইতি টানতে পারবে বাংলাদেশ।

Advertisement