Beta

ওই দুই দলের ম্যাচ মৌমাছিদের এত পছন্দ!

২৮ জুন ২০১৯, ২০:২৮

স্পোর্টস ডেস্ক
মাঠে মৌমাছি। খেলা বন্ধ। মাঠেই শুয়ে আছেন ক্রিকেটার ও আম্পায়াররা। ছবি : রয়টার্স

দক্ষিণ আফ্রিকা-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ। আবারো মাঠে মৌমাছি। ডারহামে ম্যাচ চলার সময় ঢুকে পড়ে মৌমাছি। খেলা বন্ধ রেখে মাঠে শুয়ে পড়তে হয় দুই দলের ক্রিকেটারদের। আবারো বলা হল, কারণ ২০১৭ সালে একই ঘটনা ঘটেছিল ওই দুই দলের ম্যাচে। সেটা ঘটে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে!

ডারহামে শ্রীলঙ্কা তখন ধুঁকছিল। ১৯৫ রানে ৮ উইকেট নেই। ব্যাট করছিলেন উদানা ও লাকমল। বোলিংয়ে ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার মরিস। হঠাৎই ব্যাটসম্যানরা ও বোলার শুয়ে পড়লেন মাটিতে। একে একে সব ফিল্ডাররাও শুয়ে পড়লেন মাটিতে।

আম্পায়াররা বাদ থাকবেন কেন? তাঁরাও একইকাজ করলেন। কারণ মাঠজুড়ে ভনভন করছে মৌমাছি। আর মৌমাছির হাত থেকে বাঁচতেই ওই শুয়ে পড়া। কয়েক মিনিট মাঠে মুখ গুঁজে শুয়ে থাকতে হয়েছে দুই দল আর আম্পায়ারদের। এরপর মৌমাছিরা চলে যায়।

২০১৭ সালে জোহানেসবার্গের ছবি। সেই দ. আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কা ম্যাচে মাঠে ঢুকে পড়ে মৌমাছি। ছবি : সংগৃহীত

মৌমাছিরা চলে গেলেও মরিস আর প্রিটোরিয়াসের তোপ থেকে বাঁচেনি শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানরা। ২০৩ রানেই গুটিয়ে গেছে শ্রীলঙ্কার ইনিংস।

মৌমাছি মাঠে ঢুকে পড়া, ভয়ে মাটিতে শুয়ে পড়ার অভিজ্ঞতা ওই দুই দলের জন্য নতুন নয়। ২০১৭ সালে জোহানেসবার্গে দুই দলের ওয়ানডে ম্যাচের সময় মৌমাছি ঢুকে পড়ে। তবে আজকের মত সহজেই মৌমাছি চলে যায়নি। ক্রিকেটারদের মাঠও ছাড়তে হয়েছে। পরে অবশ্য খেলা হয়। আর তাতে দক্ষিণ আফ্রিকার সাত উইকেটে জয়ী হয়।

ওই ওয়ানডেতে আগে ব্যাট করে ১৬৩ রানে অলআউট হয় শ্রীলঙ্কা। এবি ডিভিলিয়ার্সের দারুণ ব্যাটিংয়ে সহজেই জয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

Advertisement