Beta

যে রেকর্ড না হলে ভালো হতো বাংলাদেশের!

১২ জুন ২০১৯, ২১:০১ | আপডেট: ১২ জুন ২০১৯, ২৩:৪১

স্পোর্টস ডেস্ক

চলমান বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত মাত্র ১৬টি ম্যাচ হয়েছে, এখনো বাকি ৩২ ম্যাচ। কিন্তু এরই মধ্যে পরিত্যক্ত ম্যাচের সংখ্যায় রেকর্ড গড়েছে ইংল্যান্ড-ওয়েল বিশ্বকাপ।

এবারের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত তিনটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছে। এর আগে কোনো বিশ্বকাপে এত ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়নি। এর আগে ১৯৯২ সালে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড ও ২০০৩ সালের দক্ষিণ আফ্রিকা-কেনিয়া-জিম্বাবুয়ে বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি দুটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল।

গত ৭ জুন ব্রিস্টলের পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কা, ১০ জুন সাউথাম্পটনে দক্ষিণ আফ্রিকা-ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং সর্বশেষ ১১ জুন ব্রিস্টলে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়। তা ছাড়া দুটি ম্যাচ টস ছাড়াই পরিত্যক্ত হয়েছে।

তবে এমন রেকর্ড না হলে সবচেয়ে ভালো হতো বাংলাদেশের! যেমন শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে নিশ্চিত জয়ের ছক কষেছিল বাংলাদেশ। সেখানে বৃষ্টির কারণে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়াতে নিশ্চিত জয় বঞ্চিত হয় টাইগাররা। ফলে একটি পয়েন্ট হারান মাশরাফিরা।

এর আগে চারটি বিশ্বকাপে একটি করে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল। ১৯৯৬ বিশ্বকাপে কেনিয়া-জিম্বাবুয়ে, ১৯৯৯ বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড-জিম্বাবুয়, ২০১১ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা এবং ২০১৫ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়েছিল।

তবে এখন পর্যন্ত তিনটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও ইংল্যান্ডে বৃষ্টির যে হাল আরো কয়েকটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হলে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।

এদিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ কোচ স্টিভ রোডস, ‘এই ম্যাচ থেকে দুই পয়েন্ট পাওয়ার লক্ষ্য ছিল আমাদের। তাই ম্যাচটি না হওয়ায় আমরা খুবই হতাশ। ইংলিশ আবহাওয়ায় প্রচুর বৃষ্টিপাত হবেই। তাই রিজার্ভ ডে রাখা উচিত ছিল।’

আয়োজকদের উদ্দেশে বাংলাদেশ কোচ বলেন, ‘চাঁদে লোক পাঠাতে পারি, আমরা কেন রিজার্ভ ডে রাখতে পারি না।’

বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি হতাশা প্রকাশ করেছিলেন, ‘মাঠে আসার পর খেলতে না পারা সব দলের জন্যই হতাশার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমরা জয়ের সুযোগ পেয়েছিলাম। ইংল্যান্ড ম্যাচে সুযোগ হয়নি। তবে দিনটি ছিল হতাশার।’

Advertisement