Beta

বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা লড়াইয়ের পরিসংখ্যান

০২ জুন ২০১৯, ১৫:১৫

স্পোর্টস ডেস্ক

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আর কিছুক্ষণ পরই দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। আসরে টাইগারদের এটি প্রথম ম্যাচ হলেও প্রোটিয়াদের জন্য এটি দ্বিতীয় ম্যাচ আজ। এবারের বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল ফাফ ডু প্লেসির দল। আজকের ম্যাচের আগে ওয়ানডে ক্রিকেটে মোট ২১ বার একে অপরের মোকাবিলা করেছে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। পরিসংখ্যানের হিসাবে বড় ব্যবধানে এগিয়ে আছে প্রোটিয়া দল।

মুখোমুখি হওয়া ২১ ম্যাচের ১৭টি ম্যাচেই জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। বিপরীতে মাত্র তিনটি জয় বাংলাদেশের। একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। ওয়ানডে ক্রিকেটে ২০০২ সালে পচেফস্ট্রুমে প্রথমবার দক্ষিণ আফ্রিকার মুখোমুখি হয় বাংলাদেশ।  ম্যাচটি ১৬৮ রানের বড় ব্যবধানে হেরে গিয়েছিল বাংলাদেশ দল। এরপর টানা আরো ছয়টি ম্যাচে প্রোটিয়াদের কাছে হেরে যায় বাংলাদেশ। প্রত্যেকটি ম্যাচেই বড় ব্যবধানে হেরে যায় টাইগাররা। তবে অষ্টম মোকাবিলায় এসে ঘুরে দাঁড়ায় লাল-সবুজের দল। ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত ২০০৭ বিশ্বকাপে মোহাম্মদ আশরাফুলের স্মরণীয় ইনিংসের ওপর ভর করে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৬৭ রানে হারিয়ে দেয় বাংলাদেশ।    

২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ওয়ানডে সিরিজ জয়ের স্বাদ পায় বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচ হেরে গেলেও, পরের দুটি ম্যাচে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন করে সিরিজ জিতে নেয় মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। তবে দুই দলের মধ্যে শেষ তিনটি ম্যাচের তিনটিতেই জয় পেয়েছে প্রোটিয়ারা। ২০১৭ সালে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচ সিরিজের তিনটিতেই জয় পায় ফাফ ডু প্লেসির দল।

বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত তিন ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০০৩ বিশ্বকাপে ব্লুমফন্টেইনে প্রথম মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানে পরাজিত করে সেই আসরের আয়োজক দেশ দক্ষিণ আফ্রিকা। তবে ঠিক পরের আসরেই ঘুরে দাঁড়ায় টাইগাররা। ক্যারিবিয়ানে অনুষ্ঠিত ম্যাচে আশরাফুলের দারুণ ব্যাটিংয়ের পর স্পিনারদের নৈপুণ্যে ৬৭ রানের বড় জয় পায় বাংলাদেশ। ২০১১ বিশ্বকাপে ঘরের মাঠে তৃতীয় মোকাবিলায় আবার বড় জয় তুলে নেয় প্রোটিয়ারা।

আজ ওভালে বিশ্বকাপের ম্যাচে চতুর্থবারের মতো একে অপরের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে দুই দল। নিজেদের প্রথম ম্যাচে জয় দিয়ে শুরু করতে চাইবে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। অন্যদিকে, প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে যাওয়া ফাফ ডু প্লেসির দল নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে জয়ের ধারায় ফেরার জন্য লড়বে।

Advertisement