Beta

অপেক্ষা ঘুচল বাংলাদেশের, পেল অধরা শিরোপার-সাফল্য

১৭ মে ২০১৯, ২৩:৪৩ | আপডেট: ১৮ মে ২০১৯, ০১:০০

স্পোর্টস ডেস্ক

লক্ষ্যটা বেশি কঠিনই, ২৪ ওভারে ২১০ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে এই বড় লক্ষ্য তাড়া করেও দারুণ জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। ক্যারিবীয়দের পাঁচ উইকেটে হারিয়ে দীর্ঘ দিনের অপেক্ষা ঘুচল বাংলাদেশের। পেল অধরা শিরোপা।

দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বাদে এই প্রথম কোনো শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ। ১৯৯৮ সালের ১৭ মে ভারতের হায়দরাবাদে এসেছিল প্রথম ওয়ানডে জয়। আজ ২১ বছর পর সেই ১৭ মেতেই বাংলাদেশ পেয়েছে নিজেদের প্রথম শিরোপা।  

এর আগে ছয়টি টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলেও ফিরতে বাংলাদেশকে ফিরতে হয়েছিল খালি হাতে। আজ ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে অন্যরকম বাংলাদেশকে দেখল বিশ্ব।

বৃষ্টি-বিঘ্নিত ফাইনাল ম্যাচটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথমে ব্যাট করে ১৫২ রান করে। তবে বৃষ্টি আইনে ২৪ ওভারে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ২১০ রান। এই রান তাড়া করতে নেমে ঝড় শুরু করে বাংলাদেশ। যদিও মাঝখানে কিছুটা চাপে পড়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। তবে মোসাদ্দেক হোসেন ও সৌম্য সরকারের ব্যাট হাতের দৃঢ়তায় এই ইতিহাস গড়া সাফল্য পায় বাংলাদেশ। 

সৌম্য ৪১ বলে ৬৬ এবং মোসাদ্দেক ২৪ বলে ৫২ রানের চমৎকার দুটি ইনিংস খেলে দলকে শিরোপার-সাফল্য এনে দেন।       

তামিম ইকবাল ১৮ ও সাব্বির রহমান কোনো রান না করে আউট হন।  মুশফিক ৩৬ ও মিঠুন ১৭ রান করেন।

এর আগে বাংলাদেশ সময় বিকেল পৌনে ৪টায় শুরু হওয়ার পর ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২০.১ ওভারে ১৩১ রান করতেই বৃষ্টি নামে। বেশ কিছুক্ষণ বন্ধ থাকার পর রাত সাড়ে ১০টায় আবার শুরু হয় খেলা। বৃষ্টি-বিঘ্নিত ম্যাচটি হচ্ছে ২৪ ওভারে। পরে ৩.৫ ওভারে আরো ২১ রান যোগ করে তারা। ম্যাচে হোপ ৭৪ ও অ্যামব্রিস ৬৯ রান করেন।

প্রথম শিরোপা জয়ের দিনে বাংলাদেশ দল আজ পায়নি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে চোট পাওয়া সাকিবের ম্যাচে খেলা না খেলা নিয়ে দোটানা ছিল। তবে সামনেই বিশ্বকাপের মতো গুরুত্বপূর্ণ আসর থাকায় সাকিবকে নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চায়নি বাংলাদেশ দল। সাকিবের বদলি হিসেবে আজকের ম্যাচে একাদশে সুযোগ পেয়েছেন ব্যাটিং অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে আজকের ফাইনালে আগের ম্যাচের একাদশ থেকে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ দল। বুধবার আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে আগে থেকেই ফাইনালে নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় রিজার্ভ বেঞ্চের খেলোয়াড়দের মধ্য থেকে বেশ কয়েকজনকে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। তবে আজ আবার পূর্ণশক্তির নিয়মিত একাদশে নিয়ে নেমেছে টাইগাররা। সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আগের দুই ম্যাচে খেলা এবং ভালো পারফর্ম করা খেলোয়াড়দেরই বেছে নেওয়া হয়েছে ফাইনাল ম্যাচের একাদশে।

আয়ারল্যান্ডের ম্যাচে মেহেদী হাসান মিরাজকে বিশ্রাম দেওয়ায় সুযোগ পেয়েছিলেন মোসাদ্দেক সৈকত। তবে ফাইনালে দলে ফিরেছেন মিরাজ। অন্যদিকে সাকিবের ইনজুরির কারণে দলে জায়গা ধরে রেখেছেন মোসাদ্দেক। পেস বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবে যথারীতি দলে আছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। পেস বোলিং বিভাগে অধিনায়ক মাশরাফির সঙ্গে গত দুই ম্যাচে খেলেছিলেন আবু জায়েদ রাহি। সর্বশেষ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে খেলেছিলেন রুবেল হোসেন। তবে ফাইনাল ম্যাচে একাদশে বাঁহাতি মুস্তাফিজুর রহমান একাদশে ফেরায় দুজনকেই একাদশের বাইরে চলে যেতে হয়েছে।

Advertisement