Beta

বিশ্বের সবচেয়ে দামি গোলরক্ষকের কাণ্ড!

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৪২

স্পোর্টস ডেস্ক

অ্যাতলেটিকো বিলবাও থেকে ২০১৮ সালে ইংলিশ ক্লাব চেলসিতে যোগ দেন কেপা অ্যারিজাবালাগা। বেলজিয়ান গোলরক্ষক থিবো কুর্তোয়া রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিলে ভালো মানের একজন গোলরক্ষকের প্রয়োজন হয়ে দাঁড়ায় চেলসির। সেই অভাব পূরণের জন্য স্প্যানিশ গোলরক্ষক অ্যারিজাবালাগাকে ২০১৮ সালে প্রায় ৭২ মিলিয়ন পাউন্ডে (প্রায় ৮২ মিলিয়ন ইউরো) দলভুক্ত করে রোমান আব্রামোভিচের দল। ফুটবল গোলরক্ষকদের ইতিহাসে ট্রান্সফার ফির রেকর্ড গড়া কেপা অ্যারিজাবালাগা বিলবাওর হয়ে লা লিগায় মাত্র ৫৩ ম্যাচ খেলেছেন। আর স্পেন জাতীয় দলের হয়ে একবার মাত্র মাঠে নেমেছিলেন কেপা।

চেলসির হয়ে বেশ ভালোই খেলছিলেন কেপা। দিচ্ছিলেন ম্যানেজমেন্টের আস্থার প্রতিদান। তবে রোববার ইংলিশ কাপের ফাইনালে অদ্ভুত এক কাণ্ড করে বসেন এই গোলরক্ষক। ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে ফাইনালের দ্বিতীয়ার্ধে মাংসপেশিতে টানের কারণে বেশ ভোগান্তি পোহাচ্ছিলেন অ্যারিজাবালাগা। টাইব্রেকারের দিকে গড়াতে থাকা ম্যাচের শেষ দিকে তাই তাঁর জায়গায় আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক উইলি কাবাইয়েরোকে নামাতে চেয়েছিলেন চেলসি কোচ মরিসিও সাররি। তবে হাত নেড়ে মাঠ থেকে উঠে যেতে অস্বীকৃতি জানান বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই গোলরক্ষক। শিষ্যের এমন ব্যবহারে ডাগআউটে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখান ইতালিয়ান কোচ।    

শেষ পর্যন্ত আর মাঠ থেকে উঠেননি অ্যারিজাবালাগা। টাইব্রেকারে ম্যানসিটির হয়ে তৃতীয় শট নিতে আসা লেরয় সানের শটটি ঠেকিয়েও দেন এই স্প্যানিশ গোলরক্ষক। তবে চেলসি শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি হেরে যায় ৪-৩ গোলে। হিরো হতে গিয়েও আর হয়ে উঠতে পারেননি অ্যারিজাবালাগা। তবে কোচের নির্দেশ অমান্যের মতো কাণ্ড করে জন্ম দিয়েছেন বিতর্কিত এক ঘটনা।

Advertisement