Beta

বোলিং অ্যাকশন নিয়ে নতুন বিতর্কে হাফিজ

২৪ মে ২০১৮, ১৩:২৪ | আপডেট: ২৪ মে ২০১৮, ১৪:১৯

স্পোর্টস ডেস্ক

বেশ কয়েকবার বোলিং অ্যাকশন প্রশ্নবিদ্ধ হয় পাকিস্তানের অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজের। বোলিং অ্যাকশন শুধরানোর জন্য বেশ লম্বা সময় মাঠের বাইরেও থাকতে হয়েছে এই পাকিস্তানি ক্রিকেটারকে। স্বাভাবিকভাবে ব্যাপারটি নিয়ে বেশ ক্ষুব্ধ তিনি। আইসিসির বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা প্রক্রিয়া ঠিক নয় এমন মন্তব্য করায় গত শনিবার ডানহাতি অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজকে কারণ দর্শানো নোটিশ পাঠিয়েছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। বুধবার কারণ দর্শানো নোটিশের জবাবে হাফিজ জানিয়েছেন কখনোই আইসিসির বিপক্ষে কিছু বলেননি তিনি।

২০১৪ সালে প্রথমবারের মতো বোলিং অ্যাকশনের কারণে নিষিদ্ধ হন হাফিজ। বেশ দীর্ঘ সময় মাঠের বাইরে কাটিয়ে ২০১৫ সালের এপ্রিলে অ্যাকশন শুধরে বোলিংয়ে ফেরেন পাকিস্তানের এই অলরাউন্ডার। দু’মাস না যেতেই  আবারও  বোলিং থেকে নিষিদ্ধ করা হয় তাকে। ২০১৬ সালের নভেম্বরে পুনরায়  অ্যাকশন শুধরে ফিরে আসেন তিনি। এরপর আবার গত বছরের অক্টোবরে তাকে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের কারণে তৃতীয় এবং শেষবারের মতো নিষিদ্ধ করা হয়।

চলতি বছরের এপ্রিলে বোলিং অ্যাকশন শুধরে ফিরে এলেও বেশ ক্ষুব্ধ ছিলেন পাকিস্তানের এই অভিজ্ঞ  ক্রিকেটার। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা করার প্রক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন ৩৭ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার। যার কারণে পিসিবি থেকে তাঁকে দেওয়া হয় কারণ দর্শানো নোটিশ।
সেই নোটিশের জবাবে হাফিজ জানান তিনি কেবল আইসিসির কারিগরি কিছু দিক নিয়ে নিজের মতামত দিয়েছেন। ক্রিকেটের এই সংস্থার বিপক্ষে কিছু বলেননি। তিনি বলেন, ‘আমি শুধু কিছু কারিগরি বিষয় নিয়ে কথা বলেছি। আইসিসির বিপক্ষে কিছু বলিনি। ক্রিকেটে মাঠের বাইরে অনেক কিছুই হয়, প্রায় সব সিদ্ধান্ত অন্য কিছু দ্বারা প্রভাবিত হয়। কিছু  কিছু ক্ষেত্রে ক্রিকেট বোর্ড নিজেদের ক্ষমতার চূড়ান্ত দেখাতেও ছাড়ে না।’

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement