Beta

আপনার জিজ্ঞাসা

আত্মহত্যাকারীর কবরে অন্যকে কি কবর দেওয়া যাবে?

২৭ এপ্রিল ২০১৮, ১৩:০৩

অনলাইন ডেস্ক

নামাজ, রোজা, হজ, জাকাত, পরিবার, সমাজসহ জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান ‘আপনার জিজ্ঞাসা’। জয়নুল আবেদীন আজাদের উপস্থাপনায় এনটিভির জনপ্রিয় এ অনুষ্ঠানে দর্শকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বিশিষ্ট আলেম প্রফেসর ড. আবু বকর মুহাম্মদ জাকারিয়া।

জুমাবারের বিশেষ আপনার জিজ্ঞাসার ৫৩৬তম পর্বে আত্মহত্যাকারীর কবরে অন্য ব্যক্তিকে কবর দেওয়া যাবে কি না, সে সম্পর্কে জানতে চেয়ে টেলিফোন করেছেন একজন দর্শক। অনুলিখনে ছিলেন জহুরা সুলতানা।


প্রশ্ন : কোনো ব্যক্তি যদি আত্মহত্যা করেন, তাহলে সেই ব্যক্তির কবরে যিনি স্বাভাবিকভাবে মারা গিয়েছেন, তাঁকে কবর দেওয়া যাবে কি?

উত্তর :
আত্মহত্যা করা অবশ্যই মহাপাপ। রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘কোনো ব্যক্তি যে জিনিস দিয়ে আত্মহত্যা করবে, সেটির শাস্তি হতেই থাকবে।’ কেউ যদি বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করে, তাঁকে বিষ খাইয়ে শাস্তি দেওয়া হবে; কেউ যদি গাড়ির নিচে পড়ে আত্মহত্যা করে, তাঁকে সেভাবেই শাস্তি দেওয়া হবে, অর্থাৎ আখিরাতে তাঁকে সেভাবেই কষ্ট দেওয়া হবে। আত্মহত্যা হচ্ছে মহাপাপের কাজ। কারণ, এটি ওই ব্যক্তিকে কুফরি পর্যন্ত নিয়ে যায়। কুফরি হবে, কারণ মানুষ যখন নিরাশ হয়ে যায়, তখন আত্মহত্যা করে। নিরাশ হয়ে যাওয়া হচ্ছে কুফরি, নিরাশ ব্যক্তি কাফের হয়ে যাবে। এ জন্য বড় আলেমরা বলে থাকেন, তাঁর এই ব্যক্তির জানাজা দেবেন না। রাসুল (সা.) এই বিষয়ে হাদিসে বলেছেন, ‘তোমরা পড়ো’, কিন্তু রাসুল (সা.) পড়েননি। এই জন্য আলেমরা জানাজা পড়াবেন না, এটিই হচ্ছে বিশুদ্ধ নিয়ম। আলেমরা আত্মহত্যাকারীর জানাজা আদায় করবেন না।

সাধারণ মানুষ বলবে, হয়তো তাঁর ইমান ছিল, আবেগের বশে কাজটি করে ফেলেছেন, এই জন্য জানাজা পড়ে তাঁকে কবরে দেবেন। বড় কোনো ভালো আলেম তাঁর জানাজায় অংশ নেবেন না, কারণ যাঁরা তাঁর জন্য দোয়া করবেন, এমন বড় আলেম শরিক করার যোগ্যতা তিনি হারিয়েছেন।

আত্মহত্যাকারীর কবরে অন্য ব্যক্তিকে কবর দেওয়ায় ইনশাআল্লাহ কোনো সমস্যা নেই। কারণ যাঁর যাঁর আমল, তাঁর তাঁর কবর। একজনের কবরের কষ্ট পাশের জন পাবেন, বিষয়টি এমন না। কোনো কোনো বর্ণনায় বা কিতাবে যে বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে, সেটি বিশুদ্ধ নয়। এটি ব্যক্তিগত গবেষণা। কিন্তু বিশুদ্ধ বক্তব্য হচ্ছে, আত্মহত্যা করলেও তাঁর কবরে যেমন আরেকজনকে দাফন করা যাবে, তেমনি স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণকারীর কবরে আত্মহত্যাকারীকেও কবর দেওয়া যাবে, কোনো সমস্যা নেই। আমরা দোয়া করব মানুষ যেন ভুল না করে, সব সময় সঠিক পথে থাকে, নামাজের পথে থাকে। আত্মহত্যার চেয়ে বড় অন্যায় আর কিছু হতে পারে না, কারণ আল্লাহর ওপরে নিরাশ হয়েই তাঁরা এই কাজগুলো করে থাকেন। 

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement