দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদ আনন্দ উদযাপন

১১ জুলাই ২০১৯, ১৪:১৪

দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশিদের উদ্যোগে ঈদ আনন্দ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার ইনছন শহরের নিকটবর্তী পুচ্ছন সিটিতে গত ৩০ জুন অনুষ্ঠানটি হয়।

অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে প্রবাসীদের সংগঠন ‘বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ইন কোরিয়া’। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি রতন আহমেদ এবং সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পরিষদের সভাপতি সৈয়দ কায় খসরু। প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মুকিমা বেগম। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন পুচ্ছন বিদেশি সাহায্য সংস্থার সভাপতি কিম সোন ইন হোয়ান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুকিমা বেগম বলেন, ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি। ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও প্রবাসে ঈদ আনন্দ উপভোগ করা সম্ভব হয়ে উঠে না। আজকের এই ঈদ আনন্দ আয়োজন প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য অত্যন্ত আনন্দের।

এ সময় প্রবাসীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে দূতাবাসের এই কর্মকর্তা বলেন, কোরিয়ার বিভিন্ন অফিশিয়াল কাজে যেভাবে অন্যান্য দেশের ভাষার প্রচলন রয়েছে, সেভাবে যেন বাংলা ভাষার ব্যাপক প্রচলন হয় তার জন্য দূতাবাসের পক্ষ থেকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অনুষ্ঠানে অন্য বক্তারা বলেন, দূর প্রবাসে পরিবার-পরিজন ছাড়া প্রবাসীদের জন্য ঈদ আনন্দ বেদনাবিধূর। ঈদ পুনর্মিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আয়োজকদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ জানান তাঁরা।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ইন কোরিয়ার সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম রাহাত, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মোহাম্মদ গোলাম সারোয়ার প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের সভাপতি রতন আহমেদ সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে কোরিয়া প্রবাসী সব বাংলাদেশিকে একে অপরের সহযোগী হয়ে কাজ করার এবং দূতাবাসের সব কার্যক্রমে সহায়তা করার অনুরোধ জানান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ইন কোরিয়ার পক্ষ থেকে দূতাবাসের সচিব মুকিমা বেগমকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান রতন আহম্মদ। দ্বিতীয় পর্বে জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এতে একক গান পরিবেশন করেন প্রবাসী বাংলাদেশি শিল্পী লতা, বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পরিষদের সভাপতি সৈয়দ কায় খসরু, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত কোরিয়ান নাগরিক অভিনেতা ও শিল্পী বান দে হান খান। এ ছাড়া মাইজভাণ্ডারি গান গেয়ে দর্শকদের মাতিয়ে তোলেন বাংলাদেশ অর্গানাইজেশনের ইন কোরিয়ায় প্রধান উপদেষ্টা, চট্টগ্রাম অ্যাসোসিয়েশন ইন কোরিয়ার সভাপতি  ম্যাক্সিম চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ইন কোরিয়ার সহসভাপতি লুলু জামালী, নাজিম উদ্দিন বাবু, প্রচার সম্পাদক শাহনেওয়াজ জুয়েল, পুচ্ছন সিটি পুলিশের কর্মকর্তা ইয়ং ছন ফেজাং, বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন কোরিয়ায় একাংশের সভাপতি আরশাদুল আলম বিকি,  বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন ইন কোরিয়ায় সভাপতি, বাংলাদেশ অর্গানাইজেশনের ইন কোরিয়ায় জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি আরিফুর রহমান ইরান, গোপালগঞ্জ অ্যাসোসিয়েশন ইন কোরিয়ার সাধারণ সম্পাদক ডেভিড ইকরাম, বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ইন কোরিয়ার উপদেষ্টা রফিকুল ইসলাম ভুট্টো, মোস্তফা কামাল, সহসভাপতি ইমদাদুল হক সেলিম, আমিনুর রহমা মোল্লা, নাহিদুজ্জামান নাহিদ, নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন ইন কোরিয়ায় সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ইন কোরিয়ার জ্যেষ্ঠ যুগ্ম সম্পাদক মনির পাটোয়ারী, নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন ইন কোরিয়ায় সহসভাপতি আলমগীর হোসেন আলম, মনোয়ার হোসেন মানিক, যুগ্ম সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মনির, সহসাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ সানিম, দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।