Beta

মৌসুমীকে আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের আজীবন সম্মাননা

১৮ জুন ২০১৯, ১৪:৪৪

নিউইয়র্ক সংবাদদাতা
নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডের হেকশার পার্কে রোববার অভিনেত্রী আরিফা পারভিন মৌসুমীকে আজীবন সম্মাননা জানায় আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব। ছবি : সংগৃহীত

জাতিসংঘের শুভেচ্ছাদূত ও বাংলাদেশের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী অভিনেত্রী আরিফা পারভিন মৌসুমীকে আজীবন সম্মাননা দিয়েছে আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব।

গত রোববার স্থানীয় সময় বিকেলে নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডের হেকশার পার্কে আয়োজিত সংগঠনের বার্ষিক বনভোজনে মৌসুমীকে ওই সম্মাননা দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে তাঁকে দেওয়া হয় আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের ‘অনারারি সদস্য’ পদও।

আজীবন সম্মাননাপ্রাপ্তির প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে মৌসুমী বলেন, ‘আমি এই সম্মাননা পেয়ে খুবই উচ্ছ্বসিত, যা ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়। এ সম্মান আমি বহন করে নিয়ে যাব বাংলাদেশে। আজ থেকে আমার নতুন পরিচয় আমি আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের একজন সম্মানিত সদস্য,  যা অত্যন্ত  গৌরবের।’ এই সম্মাননাকে নিজের জীবনের সাফল্যের অন্যতম একটি সংযোজন বলে উল্লেখ করেন মৌসুমী।

অন্যদিকে স্ত্রীর সম্মাননাপ্রাপ্তিতে প্রতিক্রিয়ায় চিত্রনায়ক ওমর সানি বলেন, ‘আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব একজন যোগ্য মানুষকে যোগ্য সম্মান জানিয়েছে। এতে আমি ব্যক্তিগতভাবে খুশি। আমি সব সময় মনে করি, সাংবাদিকরা আমার পরিবারের সদস্য বা আমি সাংবাদিকদের পরিবারের সদস্য।’

প্রেসক্লাবের কার্যকরী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে সভাপতি দর্পণ কবীর মৌসুমীর হাতে এ সম্মাননা তুলে দেন। এ সময় ক্লাবের সাবেক সভাপতি নাজমুল আহসান, সাধারণ সম্পাদক শাহাব উদ্দিন সাগর, সহসভাপতি বেলাল আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে বিকেলের দিকে সম্মাননা অনুষ্ঠান শুরু হলেও দুপুরেই করা হয় বনভোজনের। এটি উদ্বোধন করেন ডেমোক্র্যাটিক ডিস্ট্রিক্ট লিডার এট লার্জ অ্যাটর্নি মঈন চৌধুরী। কলামিস্ট আবু জাফর মাহমুদ, জনপ্রিয় উপস্থাপক খন্দকার ইসমাইল ও সংগীতশিল্পী তানভীর তারেক এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

বনভোজনের অংশ হিসেবে আয়োজন করা হয়েছিল পিলো পাসিং গেম, পুরুষদের গোলবার কিক, নারীদের  সুঁই-সুতা খেলাসহ বিভিন্ন ইভেন্ট। ছিল বাবা দিবস উপলক্ষে বাবার ছবি আঁকার প্রতিযোগিতা ও বাবাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান। পরে প্রতিটি ইভেন্টে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। এ ছাড়া রাখা হয় র‍্যাফেল ড্রর  ব্যবস্থাও।

পরে মনোজ্ঞ এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশের সংগীতশিল্পী পাপী মনা। উপস্থাপক খন্দকার ইসমাইল ও শামসুন্নার নিম্মিও এ সময় গান গেয়ে শোনান।

সব মিলিয়ে আড্ডায়, নাচে, গানে জমে ওঠে গোটা হেকশার পার্ক প্রাঙ্গণ। সব শেষে বনভোজনে উপস্থিত সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান আমেরিকা-বাংলাদেশ প্রেসক্লাব সভাপতি দর্পণ কবীর।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এস্টোরিয়া ডিজিটালের কর্ণধার নজরুল ইসলাম, শো-টাইম মিউজিকের প্রধান আলমগীর খান আলম, জ্যাকসন হাইটস বাংলাদেশি বিজনেস অ্যাসোসিয়েশন-জেবিবিএর সভাপতি শাহনেওয়াজ, সংগীতশিল্পী রানো নেওয়াজ, কমিউনিটি অ্যাক্টিভিস্ট হাসান জিলানী, আবদু রশীদ বাবু, সাপ্তাহিক আজকালের সহযোগী সম্পাদক হাসানুজ্জামান সাকী, নিউজ প্রেজেন্টার সাদিয়া খন্দকারসহ আরো অনেকে।

Advertisement