Beta

ত্বকের সুস্থতায় স্টিম

২৬ মে ২০১৫, ১৯:২৪

স্টিম সুস্থ ত্বকের জন্য বেশ কার্যকরি। ছবি : দ্য বার্নিট ডাইয়ার্স

স্টিম সবচেয়ে কম খরচে এবং প্রাকৃতিক উপায়ে ত্বককে সুস্থ ও সতেজ রাখে। একটি বাটিতে গরম পানি নিয়ে তোয়ালে দিয়ে মুখ ঢেকে গরম পানির ভাব নেওয়াকে স্টিম দেওয়া বলে, যা ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ত্বকের রোগজীবাণু ধ্বংস করে এবং ত্বক রাখে উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত।

বোল্ডস্কাই ওয়েবসাইটে ত্বকের সুস্থতায় স্টিম কেন প্রয়োজনীয় তার কিছু দিক তুলে ধরা হয়েছে। চলুন, একনজরে জেনে নেওয়া যাক নিয়মিত স্টিম নিলে ত্বকের কী কী উপকার হয়।

১. ত্বক উজ্জ্বল করে

স্টিমের কারণে ত্বকের রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। এর ফলে ত্বক পর্যাপ্ত পরিমাণে নিউট্রিশন এবং অক্সিজেন পায়, যা ত্বককে সুস্থ ও উজ্জ্বল রাখতে সাহায্য করে।

২. ব্রণ দূর করে

স্টিমের কারণে ত্বকের মরা কোষ দূর হয়, ক্ষতিকর জীবাণু ধ্বংস হয়, ময়লা পরিষ্কার হয় এবং তেলতেলে ভাব দূর হয়। এগুলোই ব্রণ হওয়ার প্রধান কারণ। তাই স্টিম দেওয়ার ফলে ত্বকে ব্রণ হওয়ার আশঙ্কা অনেক কম থাকে। স্টিম ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে কোষের ভেতর থেকে ময়লা, রোগজীবাণু দূর করে, যার ফলে ত্বক এ ধরনের সমস্যা থেকে মুক্ত থাকে।

৩. ঘামের কারণে ত্বকের ময়লা দূর হয়

স্টিমের ফলে ত্বক অতিরিক্ত ঘামায়। যার ফলে মরা কোষ ও ব্যাকটেরিয়া খুব সহজে দূর হয়। ইনফেকশন তৈরির ছত্রাক ধ্বংস হয়। এর ফলে ত্বক হয় উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত।

৪. ব্লাকহেড ও হোয়াইট হেড দূর করে

ত্বকের ব্লাকহেড ও হোয়াইট হেড দূর করতে স্টিম বেশ কার্যকর। স্টিমের কারণে ত্বকের মরা কোষ দূর হয়, যা এই সমস্যার প্রধান কারণ। প্রতি ১৫ দিন পর একবার স্টিম করলে ত্বকে মরা কোষ জমে থাকবে না এবং ত্বক হবে দাগহীন ও মসৃণ।

৫. চেহারায় বার্ধক্যের ছাপ দূর করে

ত্বকের মরা কোষের কারণে নতুন কোষ জন্মাতে পারে না এবং এর ফলে ত্বকে বলিরেখা পড়ে ভাঁজ পড়ে যায়, যা খুব তাড়াতাড়ি চেহারায় বার্ধক্যের ছাপ ফেলে দেয়। স্টিম দেওয়ার ফলে ত্বকে এ ধরনের কোনো সমস্যা সৃষ্টি হয় না। তাই বলিরেখাও পড়ে না, যা সুস্থ ত্বকের জন্য খুবই জরুরি।

৬. ত্বকের দাগ দূর করে

স্টিমের কারণে ত্বকে ময়লা জমে না। এর ফলে ত্বকের কালচে ভাব দূর হয় এবং ত্বক হয় দাগহীন। মরা কোষ দূর হওয়ার ফলে ত্বকে নতুন কোষ জন্মায়, যা ত্বকের পুষ্টিমান বজায় রাখে। এর ফলে ত্বকে কোনো দাগ থাকে না এবং ত্বক হয় স্বাস্থ্যোজ্জ্বল।

Advertisement