Beta

ঈদের সকালে হোক হালকা সাজ, সন্ধ্যায় ভারি

০৪ জুন ২০১৯, ১৬:৪০ | আপডেট: ০৪ জুন ২০১৯, ১৬:৪২

ফিচার ডেস্ক
ঈদের রাতে হোক ভারী সাজ। ছবি : মঞ্জুরুল আলম

ঈদ মানেই তো আনন্দ। আর এ বিশেষ দিনটিতে সবাই নিজেকে একটু আকর্ষণীয় করে উপস্থাপন করতে চায়।

ঈদের সকালে রান্না, অতিথি আপ্যায়ান, ঘর গুছানো ইত্যাদি নিয়ে ব্যস্ত থাকেন অনেকেই। বিকেল বা সন্ধ্যায় হয়তো নিজের জন্য একটু সময় পাওয়া যায়। আর তখন হয়তো বাইরে ঘুরে বেড়ানো হয়। তাই ঈদের দিন ও রাতের সাজে এমনিতেই একটু পার্থক্য চলে আসে।

দিনের সাজ

ঈদের দিনের সাজ কেমন হবে, এ বিষয়ে কথা হয় রেড বিউটি স্যালুনের স্বত্বাধিকারী সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভিনের সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘ঈদের দিন সকালে আমরা সাধারণত খুব ভালো অনুভব করি। মেয়েরা সাধারণত বাড়িতে থাকে। এ সময় অধিকাংশ মেয়েই হালকা ধরনের সুতি পোশাক পরতে পছন্দ করে। আসলে ঈদের সকালের সাজটা হবে ন্যাচারাল টোনে। সকালের সাজে উচিত হলো কনসিলার ব্যবহার করা। কনসিলারের সঙ্গে কমপ্যাক্ট ব্যবহার করে নেবে, যার যার টোনের ধরন অনুযায়ী। সানব্লক, ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। ব্লাশন করা যেতে পারে। আইশ্যাডোর ক্ষেত্রে পিংকিস বা ব্রাউনিশ ব্যবহার করতে পারেন। কাজল বা লাইনার যে যেটি ব্যবহার করেন সেটি ব্যবহার করবেন। এ সময় ভারি করে মাশকারা করতে পারেন। ঠোঁটের সাজের ক্ষেত্রে উজ্জ্বল রং ব্যবহার করা যেতে পারে। কেউ চাইলে পার্পেল, মেরুন বা কফি রং ব্যবহার করতে পারেন।’

চুলের ক্ষেত্রে ব্লো ডাই করে ছেড়ে রাখা যেতে পারে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আগার দিকে হালকা কার্ল করে নিতে পারেন বা আয়রন করে নিতে পারেন। আসলে চুল ছেড়ে যেকোনো স্টাইলই সুন্দর লাগে।’

সন্ধ্যা বা রাতের সাজ

সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন বলেন, ‘ঈদের রাতে অধিকাংশরাই নিজেকে সুন্দর করে তৈরি করতে চান। সবারই মাথায় থাকে আমাকে গ্ল্যামারাস লাগতে হবে। এ ক্ষেত্রে সাজটা হবে একটু ভারী। ব্লাশনটি গাঢ় রঙের করতে পারি। চোখে কালার, গ্লিটার অ্যাড করতে পারি। এ সময় চাইলে আইল্যাশ ব্যবহার করা যেতে পারে। চিকবোনে হাইলাইটার লাগাতে পারেন কাপড়ের টোন মাথায় রেখে। মাশকারা ভারি করে পরতে পারেন।

চোখ খুব গাঢ় করে সাজালে ড্রেসের সঙ্গে যে টোন মানাবে সেটি ব্যবহার করা যেতে পারে জানিয়ে তিনি বলেন, রাতে চোখের সাজ হবে গাঢ়, আর ঠোঁট হবে হালকা। চুলের ক্ষেত্রে বিভিন্নভাবে কার্ল করে আটকে নিতে পারেন। ফুলও পরা যেতে পারে। রাতের পোশাকের ক্ষেত্রে গর্জিয়াস ড্রেস পরতে পারেন। ভারি কাজের পোশাক বা গাউন পরা যেতে পারে। আর শাড়ি পরলে জমকালো শাড়ি পরতে পারেন।’

রাতের পোশাকের ক্ষেত্রে গাঢ় রঙের পোশাক পরাই ভালো বলে পরামর্শ তাঁর।

Advertisement