যেভাবে মানাবেন নতুন কর্মস্থলে

০২ আগস্ট ২০১৮, ১৪:০৫

স্কুল, কলেজ আর ইউনিভার্সিটির গণ্ডি পার হওয়ার পর শুরু হয় চাকরি পাওয়ার জন্য দুশ্চিন্তা। অনেক লিখিত-মৌখিক পরীক্ষার বেড়াজাল টপকে যখন একটা চাকরি হাতের মুঠোয় ধরা দিল, তখন আবার শুরু নতুন চিন্তা—কী করে নতুন পরিবেশে নতুন চাকরিতে মানিয়ে নেওয়া হবে নিজেকে। ঘাবড়াবেন না। মানিয়ে চলার জন্য প্রয়োজন ধৈর্য আর আত্মবিশ্বাস। মনস্টার ডটকমের সৌজন্যে জেনে নিন নিজেকে নতুন কর্মস্থলে মানিয়ে নেওয়ার কিছু টিপস।

১। নতুন কর্মস্থলে প্রথমেই যেটা জরুরি তা হলো শৃঙ্খলা বজায় রাখা। প্রত্যেকটা অফিসেরই একটা সুনির্দিষ্ট শৃঙ্খলা থাকে। সেটার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে পারলে দেখবেন নিজেকে মানিয়ে নেওয়াটা অনেক সহজ হয়ে গেছে।

২। মানিয়ে নেওয়ার মূলমন্ত্রই হলো গুছিয়ে নিজের কাজ করা। সকালে ঘুম থেকে উঠেই মনে মনে সারা দিনের একটা পরিকল্পনা করে নিন। সঠিক সময়ে অফিসে যাবেন, দেরি করবেন না। অফিসের পরিস্থিতি ও প্রয়োজনীয়তা বুঝে যেসব কাজ আগে করা দরকার, তা করে ফেলুন।

৩। কর্মস্থলে মানিয়ে নেওয়ার তৃতীয় ধাপ হলো সহকর্মীদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখা। নিজের পরিচয় দিন। সহকর্মীদের পরিচয়ও জেনে নিন। আলাপ হওয়ার পর থেকে তাদের সঙ্গে দেখা হলেই সৌজন্যমূলক কথা বলুন।

৪। সদ্য চাকরি পাওয়ার পর পুরো বিষয়টা ধাতস্থ করতে কয়েক দিন সময় লেগে যায়। সহকর্মীদের কথাবার্তা, চালচলন, আচার-আচরণ দ্বারা অফিসের হালচাল ও পারিপার্শ্বিক অবস্থা বোঝার চেষ্টা করুন। বস এবং সহকর্মীদের মন্তব্য মন দিয়ে শুনুন।

৫। কাউকে আঘাত দিয়ে কোনো কথা বলবেন না।

৬। কাজের গুণগত মান ভালো করার জন্য দরকার ভালো পরিবেশ। তাই নিজের বসার জায়গাটা ফুল, গাছ বা পছন্দের ছোটখাটো জিনিস দিয়ে মনের মতো করে সাজিয়ে নিন।

৭। কর্মস্থলে কোনো সমস্যা হলে অবশ্যই বস বা অফিস কর্তৃপক্ষকে জানান।

৮। অফিসে বসে ব্যক্তিগত কাজ, যেমন : সোশ্যাল মিডিয়া সময় কাটানো, অতিরিক্ত ফোনে আলাপ এড়িয়ে চলুন।

৯। যতক্ষণ অফিসে থাকবেন, ততক্ষণ প্রফেশনাল হতে চেষ্টা করুন। অপ্রয়োজনীয় আলোচনা, সমালোচনা থেকে বিরত থাকুন।