Beta

বিশ্ব প্রবীণ দিবস

প্রবীণের প্রতি করণীয়

০১ অক্টোবর ২০১৬, ১১:২২

প্রবীণদের যত্ন নিন। ছবি : স্লেট

আজ বিশ্ব প্রবীণ দিবস। এ বছর এ দিবসের প্রতিপাদ্য হলো ‘বয়স বৈষম্য নিরসন করুন’। প্রবীণ জীবনের একটি স্বাভাবিক, অবশ্যম্ভাবী প্রক্রিয়া। আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞানের উন্নতির ফলে মানুষের গড় আয়ু বেড়ে গিয়ে বিশ্বে প্রবীণ লোকের সংখ্যা বেড়েছে। বাংলাদেশে বর্তমানে প্রায় সোয়া এক কোটি প্রবীণের বসবাস। চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের মতে, You do not heal old age, you can only protect old age, you can promote it and you extent a save old age.

আমাদের জীবনে প্রবীণদের প্রয়োজনীয়তা

প্রবীণরা আমাদের বটবৃক্ষ, তাঁদের সারা জীবনের অভিজ্ঞতা নবীনের চলার পথের পাথেয়। প্রবীণ ব্যক্তিটি আমাদের পরিবার, সমাজ, দেশের কল্যাণে অনেক অবদান রেখেছেন। তাই এখন সময় এসেছে নবীনদের প্রবীণ ব্যক্তিটিকে তাঁর যথাযথ সম্মান, সেবা, সব ধরনের সহযোগিতা করা। এটা ভুলে গেলে চলবে না আজকের নবীন একদিন আপনিও হবেন প্রবীণ। বর্তমানের এই শহরের যান্ত্রিক জীবনে একজন প্রবীণ সবার জন্য আশীর্বাদ, তাই নয় কোনো অবহেলা, চাই প্রবীণের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

প্রবীণদের স্বাস্থ্যঝুঁকি

১) হার্টের ও রক্তনালির বিভিন্ন অসুখ

২) ক্যানসার

৩) ডায়াবেটিস

৪) বাত, ব্যথা, আরথ্রাইটিস

৫) শ্বাসতন্ত্র ও হাঁপানি

৬) আবেগজনিত অসুবিধা

৭) স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়া

৮ ) কিডনির কার্যক্ষমতা নষ্ট হওয়া

৯) শ্রবণশক্তি কমে যাওয়া

১০) হাড় ও পেশির ক্ষয়রোগ

১১) খাবারে অরুচি

১২) ঘুমের সমস্যা

১৩) হঠাৎ পড়ে গিয়ে বিভিন্ন দুর্ঘটনায় স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়ানো।

আমাদের করণীয়

১) প্রথমেই মনে রাখতে হবে প্রবীণরা আমাদের পরিবারেরই অংশ। পরিবারের অন্যান্য সদস্যের মতোই তাঁর সঙ্গে আচার-আচরণ করতে হবে। আমাদের নৈতিক দায়িত্ব হওয়া উচিত, প্রবীণদের আদর-যত্ন দিয়ে শিশুদের মতো প্রতিপালন করা এবং তাঁদের প্রতি মায়া, মমতা, ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা প্রদর্শন করা। তাঁদের মধ্যে যেন কোনো ধারণা না জন্মে যে, তারা আমাদের বোঝা।

 ২) প্রবীণদের নিয়মিতভাবে ডাক্তার দেখাবেন ও প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে পূর্ব থেকে রোগের ধারণা নিয়ে প্রতিরোধের ব্যবস্থা নিন।

৩) ডাক্তারের পরামর্শমতে নিয়মিতভাবে ওষুধ খাওয়াবেন।

৪) ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোনো ওষুধ পরিবর্তন বা বাদ দেবেন না। তাতে স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়তে পারে।

৫) আপনার প্রবীণ লোকটি যদি ইনসুলিন নেন, তবে তাঁকে তা নিতে সাহায্য করুন।

৬) পুষ্টিবিদের নিয়ম অনুসারে প্রবীণ লোকটির খাদ্য তালিকামতে খেতে দিন।

৭) বাসার প্রবীণ লোকটিকে নিয়মিতভাবে সময় দিন। তাঁর সঙ্গে ভাবের আদান-প্রদান করুন। হাসিখুশি রাখুন, নিজে ভালো থাকুন, প্রবীণকে ভালো রাখুন।

লেখক : সহকারী অধ্যাপক, গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজ, সাভার।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement