Beta

রোজা রেখে কি ইনসুলিন নেওয়া যাবে?

১৪ মে ২০১৯, ১৫:৩৫

ফিচার ডেস্ক
ডায়াবেটিস রোগীদের রোজা রাখার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন ডা. মো. মাহিদ খান ও ডা. সাখাওয়াৎ হোসেন। ছবি : সংগৃহীত

ডায়াবেটিস সারা জীবনের রোগ। এই রোগ সম্পূর্ণ নিরাময় হয় না, নিয়ন্ত্রণে রাখতে হয়। ডায়াবেটিস রোগের চিকিৎসায় ইনসুলিন ব্যবহার করা হয়। তবে রোজা রেখে কি ইনসুলিন নেওয়া যায়? 

এ বিষয়ে এনটিভির নিয়মিত আয়োজন স্বাস্থ্য প্রতিদিন অনুষ্ঠানের ৩৪৩৭তম পর্বে কথা বলেছেন ডা. মো. মাহিদ খান। বর্তমানে তিনি ইস্পাহানি চক্ষু হাসপাতালের মেডিসিন ও কার্ডিওলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে কর্মরত।

প্রশ্ন : ডায়াবেটিস রোগীরা কি রোজা রাখতে পারবেন? রোজা রাখলে কি সমস্যা হতে পারে?  আর ডায়াবেটিস রোগীদের বেলায় কারা রোজা রাখতে পারবেন?

উত্তর : ডায়াবেটিস একটি দীর্ঘমেয়াদি রোগ। এই রোগটি আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি, তবে কখনো নিরাময় করতে পারি না। একজন ডায়াবেটিস রোগী রোজা রাখতে পারবেন কি না, এটি নির্ভর করবে তাঁর ডায়াবেটিসের নিয়ন্ত্রণের ওপর। তবে যাঁরা ইনসুলিনের প্রতি নির্ভরশীল বা যাঁদের বেশি ইনসুলিন নিতে হয়, অথবা তাকে দিনে তিনবার ইনসুলিন নিতে হয় অথবা সম্প্রতি তাঁর খুব ঘন ঘন হাইপোগ্লাইসেমিয়া হচ্ছে বা সম্প্রতি তাঁর রক্তের সুগার অনেক বেড়ে গেছে, এসব রোগীকে আমরা সাধারণত রোজা রাখতে নিষেধ করি।

আরো কিছু বিষয় রয়েছে। যাদের ডায়াবেটিসের সঙ্গে কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, দীর্ঘমেয়াদি কিডনি রোগ হয়েছে, এসব ক্ষেত্রে আমরা তাদের রোজা রাখতে নিষেধ করি। যাঁদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে নেই, যাঁদের ইসকেমিক হার্ট ডিজিজ রয়েছে অথবা হার্ট ফেইলিউর রয়েছে অথবা ডায়াবেটিসের সঙ্গে তাঁর অ্যাজমার  প্রকোপ খুব বেশি, প্রায়ই হাসপাতালে ভর্তি হয়, তাঁদের আমরা সাধারণত রোজা রাখতে নিষেধ করি।

প্রশ্ন : রোজা রেখে কি ইনসুলিন নেওয়া যাবে?

উত্তর  : রোজা রেখে আমরা ইনসুলিন নেওয়ার কথা বলি না। আমরা এখানে ডোজটা বিভিন্নভাবে সমন্বয় করে নিই। সে ইফতারের সময় ইনসুলিন নেবে, আবার সেহরির সময় ইনসুলিন নেবে। যদি দিনের বেলা তার রক্তের সুগার অনেক বেড়ে যায়, তিনশর ওপরে চলে যায়, সেই ক্ষেত্রে আমরা তাকে রোজা ভেঙে ফেলতে বলি। অথবা তার যদি হাইপোগ্লাইসেমিয়া হয় বা ব্লাড সুগার পাঁচের নিচে নেমে যায়, তখনো আমরা বলি রোজাটা ভেঙে ফেলতে।

Advertisement