Beta

ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি বোঝার চার উপায়

১৭ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩৯

ফিচার ডেস্ক
ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতির কারণে অবসন্ন ভাব হতে পারে। ছবি : সংগৃহীত

সাধারণত গুরুত্বপূর্ণ মিনারেলের কথা বলতে গেলে আমরা  ক্যালসিয়াম ও আয়রনকে বুঝি। তবে ম্যাগনেসিয়াম একটি গুরুত্বপূর্ণ মিনারেল। স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এর গুরুত্বও অপরিসীম।

ম্যাগনেসিয়াম রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে, হৃৎপিণ্ড ভালো রাখে, পেশি ভালো রাখতে কাজ করে। ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি হলে শরীরে বিভিন্ন সমস্যা হয়। দেহে ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি বোঝার কিছু উপায়ের কথা জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

১. মেজাজের ওঠানামা ও ঘুমের অসুবিধা

বিষণ্ণতা ও উদ্বেগের কারণে ঘুমের অসুবিধা হয়। তবে এর বাইরেও আরেকটি সমস্যার কারণে ঘুমের সমস্যা ঘটে। আর এটি হলো ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি। ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতির কারণে মেজাজ ওঠানামা করে, আর ঘুমের সমস্যা হয়।

. পেশিব্যথা ও দুর্বলতা

পেশিব্যথা ও পেশির দুর্বলতা ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতির একটি লক্ষণ। এমন সমস্যা হলে চিকিৎসকের পরমর্শ নিন।

. অবসন্ন ভাব

অবসন্ন ভাব ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতির একটি অন্যতম প্রাথমিক লক্ষণ। সব সময় ক্লান্ত লাগলে শরীরের ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতি রয়েছে কি না পরীক্ষা করুন।

. বমি

টানা বমি হওয়া বা বমি বমি ভাব ম্যাগনেসিয়ামের ঘাটতির একটি লক্ষণ। তাই প্রায়ই বমি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যায় যেসব খাবারে :

সবুজ শাকসবজি, যেমন—পালংশাক, ব্রকলি, বাঁধাকপি ইত্যাদিতে ম্যাগনেসিয়াম থাকে। ফলের মধ্যে কলা, অ্যাভাকাডো, র‍্যাশবেরি ইত্যাদির মধ্যে ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যায়।

বিভিন্ন বাদাম ও বীজজাতীয় খাবার ম্যাগনেসিয়ামের ভালো উৎস। এ ছাড়া সামুদ্রিক মাছ, যেমন—স্যামন, টুনা, ম্যাকরেল ইত্যাদিতে ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যায়।

Advertisement