Beta

‘বাবরের জন্য সাহায্য চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করা হবে’

১১ জুন ২০১৯, ১২:৪৬

বাবরের জন্য সাহায্য চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি। গতকাল গ্যাংরিনের কারণে বাঁ পা কেটে ফেলতে হয়েছে একসময়ের এই দাপুটে অভিনেতার। গুণী এই অভিনেতা দীর্ঘদিন ধরেই নানা শারীরিক সমস্যায় শয্যাশায়ী আছেন।

অন্যদিকে, অভিনেতা জ্যাকি আলমগীর ও জামিলুর রহমান শাখাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ২০ লাখ টাকা অনুদান দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামীকাল বিকেলে নিজ কার্যালয়ে অনুদানের চেক প্রদান করবেন প্রধানমন্ত্রী। বিষয়টি এনটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। কিছুদিনের মধ্যে বাবরের জন্য সাহায্য চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

জায়েদ খান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আগামীকাল প্রধানমন্ত্রী নিজ কার্যালয়ে গুণী অভিনেতা জ্যাকি আলমগীর ও জামিলুর রহমান শাখা ভাইকে ২০ লাখ টাকা করে অনুদানের চেক তুলে দেবেন। ঈদের আগে আমরা এই গুণী দুই শিল্পীর জন্য সাহায্য চেয়ে আবেদন করেছিলাম প্রধানমন্ত্রীর কাছে।’

বাবরের জন্য সাহায্য চাওয়া হবে জানিয়ে জায়েদ খান বলেন, ‘আমাদের চলচ্চিত্রে এমন কিছু গুণী শিল্পী রয়েছেন, যাঁরা সারা জীবন কাজ করে গেছেন, টাকার দিকে তাকাননি। বাবর ভাই, জ্যাকি আলমগীর ও জামিলুর রহমান শাখা ভাই তাঁদের মধ্যে অন্যতম। শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমাদের দায়িত্ব এমন শিল্পীদের পাশে দাঁড়ানো। যে কারণে আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। শুধু আমাদের সাহায্য দিয়ে তাদের চিকিৎসা করানো সম্ভব নয়, তাই আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে সাহায্য আবেদন করছি।’

আমজাদ হোসেন পরিচালিত ‘বাংলার মুখ’ চলচ্চিত্রে নায়ক হিসেবে অভিষেক হলেও বাবরকে দর্শকরা চেনেন মূলত খলনায়ক হিসেবে। তিনি এরই মধ্যে তিন শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। শারীরিক অসুস্থতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে চলচ্চিত্র থেকে কিছুটা দূরে থাকলেও একটু সুস্থবোধ করলেই এফডিসিতে আড্ডা দিতেন তিনি। 

বরিশালের সন্তান জ্যাকি আলমগীরের আসল নাম আলমগীর হোসেন। ১৯৮২ সালে প্রয়াত পরিচালক শহীদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ‘রক্তের বন্দী’ চলচ্চিত্রে যখন প্রথম অভিনয় করেন। জ্যাকি আলমগীর এ পর্যন্ত সাত শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। এর আগে ‘আরণ্যক’ নাট্যদলের সঙ্গে প্রথম অভিনয়ে সম্পৃক্তছিলেন।

জামিলুর রহমান শাখা ১৯৬২ সালে খসরু নোমানের পরিচালনায় ‘এই তো জীবন’ নাটকে প্রথম মঞ্চে অভিনয় করেন। অভিনেতা ফরিদ আলীর সহযোগিতায় ১৯৬৬ সালে টিভি নাটকে অভিনয় করার সুযোগ হয়। তাঁর অভিনীত নাটকের সংখ্যা প্রায় দুইশ। টিভি নাটকের পাশাপাশি বেতারের নাটকেও অভিনয় করেছেন জামিলুর রহমান শাখা। মঞ্চ, টেলিভিশন, বেতার নাটকে অভিনয় করলেও চলচ্চিত্রাভিনেতা হিসেবেই পরিচিতি পেয়েছেন জামিলুর রহমান শাখা। এখন পর্যন্ত প্রায় ৭০০ চলচ্চিত্রে তিনি অভিনয় করেছেন তিনি।

Advertisement