Beta

বললেন মা

বিয়ের আগের নয়, অনন্যা হানিমুন বেবি!

০৯ মে ২০১৯, ২২:০৪

অনলাইন ডেস্ক
ভাবনা, চাঙ্কি ও অনন্যা পান্ডে। ছবি : সংগৃহীত

সবার চোখ এখন অনন্যা পান্ডের দিকে। আগামীকাল শুক্রবার ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার টু’ দিয়ে হিন্দি চলচ্চিত্র অঙ্গনে অভিষেক হতে চলেছে অভিনেতা চাঙ্কি পান্ডের কন্যা অনন্যার। বাণিজ্য বিশ্লেষকদের আশা, মুক্তির দিন বক্স অফিসে ঝড় তুলবে এ ছবি।

অবশ্য অভিষেকের অনেক আগে থেকেই আলোচিত তারকা-সন্তান অনন্যা পান্ডে। তাঁর ফ্যাশন সেন্স আর আবেদনময়ী লুক ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীরা নিয়মিতই প্রত্যক্ষ করেছেন। সামাজিক মাধ্যমে এরই মধ্যে বিপুল ভক্তসংখ্যা চাঙ্কি ও ভাবনা পান্ডের সন্তানের।

সম্প্রতি অনন্যার মা ভাবনা পান্ডে মেয়ের সম্পর্কে এক মজার গল্প শেয়ার করেছেন। একটি বিনোদন পোর্টালকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ভাবনা বলেছেন, ‘অনন্যা আক্ষরিক অর্থেই হানিমুন বেবি। আমরা ১৯৯৮ সালের জানুয়ারিতে বিয়ে করেছিলাম আর ও জন্মায় অক্টোবরে। বিয়ের আগে না বিয়ের পরে গর্ভধারণ করেছি, সে নিয়ে মানুষের কী হিসাবনিকাশ। আমরা তখন দুজন দুজনকে আবিষ্কার করছিলাম, আমাদের এই সুন্দর সন্তান এলো। আমাদের প্রথম বিবাহবার্ষিকী থেকেই অনন্যা সঙ্গে আছে।’

ভাবনা পান্ডে আরো বলেন, মেয়ের জন্য একটি সংস্কৃত নাম খুঁজছিলেন তাঁরা। তারপর অন্তর্জালে ঢুঁ মারলেন, পেলেন একাধিক নাম। ‘অনন্যা নামটিই ঠিক করলাম, এর অর্থ অতুলনীয়,’ বলেন ভাবনা। ‘কেউ যার সঙ্গে পেরে উঠবে না,’ যোগ করেন চাঙ্কি।

যদিও চাঙ্কি পান্ডের মেয়ে অনন্যা, তবু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে এই তরুণ অভিনেত্রীর প্রবেশ অতটা সহজসাধ্য ছিল না।

পুনিত মালহোত্রা পরিচালিত ও করণ জোহর প্রযোজিত ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার টু’ মুক্তি পাচ্ছে কাল। ছবিতে টাইগার শ্রফের চরিত্রের নাম রোহান, অনন্যা পান্ডের নাম শ্রেয়া ও তারা সুতারিয়ার নাম মিয়া। সেন্ট তেরেসা কলেজের নতুন ব্যাচের শিক্ষার্থী তাঁরা। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে

Advertisement