Beta

মেয়েকে মা নীনা

এই চেহারায় নায়িকা হতে পারবে না!

২০ এপ্রিল ২০১৯, ২১:৫০

অনলাইন ডেস্ক
মা নীনা গুপ্ত ও বাবা ভিভ রিচার্ডসের সঙ্গে মাসাবা গুপ্ত। ছবি : সংগৃহীত

আশির দশকের হিন্দি চলচ্চিত্র অঙ্গনে শাবানা আজমি, স্মিতা প্যাটেল, দীপ্তি নাভালদের পাশাপাশি নীনা গুপ্তও গুরুত্বপূর্ণ অভিনেত্রী। ছোটপর্দায়ও কাজ করেছেন বর্ষীয়ান এই অভিনেত্রী। গত বছর ব্লকবাস্টার ‘বাধাই হো’ ছবি দিয়ে ফের আলোচনায় উঠে আসে নীনার নাম।

‘সিঙ্গেল মাদার’ হিসেবে বড় করেছেন মেয়ে মাসাবা গুপ্তকে। বাবা সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার ভিভ রিচার্ডস। মাসাবা এখন নামকরা ফ্যাশন ডিজাইনার। কিন্তু ক্যারিয়ারের শুরুতে চেয়েছিলেন অভিনেত্রী হতে। কিন্তু মেয়ের লুক দেখে মা-ই নিষেধ করেছিলেন।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে অভিনয় থেকে ব্যক্তিগত জীবন সবকিছু নিয়েই খোলামেলা কথা বলেছেন অভিনেত্রী নীনা গুপ্ত।

মেয়ের ক্যারিয়ার প্রসঙ্গে নীনা বলেন, ‘মাসাবাও অভিনেত্রী হতে চেয়েছিল। আমি ওকে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছি, তুমি যদি অভিনয় করতে চাও তাহলে তোমায় বিদেশে চলে যেতে হবে। তোমার যেমন চেহারা তাতে এ দেশে সেভাবে কাজ পাবে না। আর এই চেহারায় তুমি খুবই কম চরিত্র পাবে, কখনোই নায়িকা হতে পারবে না। তুমি হয়তো ভালো অভিনেত্রী হতে পার, কিন্তু কখনোই হেমা মালিনী কিংবা আলিয়া ভাট হতে পারবে না।’

মাসাবা অবশ্য অভিনয় নয়, ফ্যাশন ডিজাইনিংকে পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন। তাঁর ডিজাইনকৃত পোশাকের প্রশংসা করেন সোনম কাপুর, রিহা কাপুর, কঙ্গনা রানাউত, শিল্পা শেঠি, আথিয়া শেঠিসহ আরো অনেক অভিনেত্রী।

সিঙ্গেল মাদার হিসেবে নানা সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন নীনা গুপ্ত। তবে নিজের সিদ্ধান্ত নিয়ে কোনো আফসোস নেই তাঁর। বর্তমান প্রজন্মের উদ্দেশে এই অভিনেত্রীর পরামর্শ, ‘সিঙ্গেল মাদার হিসেবে সন্তানকে বড় করা খুবই কঠিন। এ পথে না হাঁটাই ভালো। কারণ এসব ক্ষেত্রে এ দেশে মেয়েরা সংখ্যালঘু। তাই সেক্ষেত্রে সংখ্যাগরিষ্ঠদের মধ্যে সন্তানকে বড় করা ভীষণ কঠিন। বিশেষ করে শিশুর ক্ষেত্রে জীবনটা খুব কঠোর হয়ে যায়।’

নীনা গুপ্ত অভিনীত ‘বাধাই হো’ বক্স অফিসে ব্লকবাস্টার হয়েছিল। এতে অভিনয় করেন আয়ুষ্মান খুরানা ও সানিয়া মালহোত্রা। সূত্র : জি নিউজ

Advertisement