Beta

এবার যৌন হেনস্তার অভিযোগ বাঙালি পরিচালকের বিরুদ্ধে

১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৭:৫৬

অনলাইন ডেস্ক
কলকাতার বাংলা সিনেমার পরিচালক পাভেল। ছবি : সংগৃহীত

গেল বছর ভারতজুড়ে যৌন নিপীড়নবিরোধী ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলন তুঙ্গে উঠেছিল। বলিউড থেকে রাজনীতিপাড়া, সবখানেই বয়ে গিয়েছিল ঝড়। নতুন বছরে এবার যৌন হেনস্তার অভিযোগ উঠল কলকাতার পরিচালক পাভেলের বিরুদ্ধে।

জি টোয়েন্টিফোর ঘণ্টা প্রতিবেদনে জানিয়েছে, এক উঠতি অভিনেত্রীর অভিযোগ, নির্মাতা পাভেলের হাতে যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছেন তিনি। ওই অভিনেত্রী যখন ‘রসগোল্লা’ পরিচালক পাভেলের বাড়িতে গিয়েছিলেন, পেছন থেকে এসে হঠাৎই চুমু দেওয়া শুরু করেন পাভেল। সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে তিন বছর আগের এ ঘটনার বর্ণনা করেছেন অভিনেত্রী নিজেই, যেটি ভাইরাল হয়েছে।

ওই অভিনেত্রী জানান, ‘রসগোল্লা’র অডিশন চলাকালে পরিচালক পাভেলের সঙ্গে পরিচয় তাঁর। সে সময়ই ওই অভিনেত্রীকে একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রের জন্য চূড়ান্ত করেন পাভেল। চিত্রনাট্য পড়ার পর পাভেলের দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে যান ওই অভিনেত্রী। অভিনেত্রী আরো জানান, সে সময় তিনি খুব হতাশায় ভুগছিলেন।

‘আমি তখন হতাশায় ভুগছি, তেলমাখা চুল, ঢোলা কুর্তি আর মেকআপ ছাড়াই পৌঁছে যাই ওর (পাভেল) বাড়িতে। সেখানেই যৌন হেনস্তার শিকার হতে হয়। ওর আচরণে স্পষ্টই বোঝা গিয়েছিল, আমাকে গরিব ঘরের মেয়ে মনে করেছিল পাভেল।’

অভিনেত্রী আরো লেখেন, ‘একদিন হঠাৎই পেছন থেকে জড়িয়ে ধরে আমায় চুমু খেতে শুরু করে ও, আমি কোনোক্রমে নিজেকে ছাড়িয়ে নিয়ে পালিয়ে আসি সেখান থেকে।’

ওই অভিনেত্রী আরো জানিয়েছেন, বিবাহিত জীবন সুখের নয় বলে তাঁর কাছে দুঃখও প্রকাশ করেছিলেন পাভেল, এমনকি তাঁকে বিয়ের প্রস্তাবও দেন।

তবে পরিচালক পাভেল তাঁর বিরুদ্ধে তোলা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁর মতে, সিনেমা মুক্তির আগে তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে।

‘২০১৬ সালের ঘটনা যদি হয়ে থাকে, তাহলে এত দিন পর কেন বলা হচ্ছে? তখন তো আমায় কেউ চিনত না, কাজেই অনায়াসে অভিযোগ আনা আরো সহজ ছিল। তবে তখন সবাই চুপ থেকে এখন ছবির মুক্তির আগে এসব কথা বলছে,’ বলেন পাভেল। তবে ওই অভিনেত্রী বলেছেন, ভয় পেয়ে ও পরিস্থিতির চাপে পড়ে এত দিন মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন তিনি।

‘বাবার নাম গান্ধীজী’ ছবি দিয়ে কলকাতার সিনেমায় পা রাখেন পাভেল। তবে ‘রসগোল্লা’ দিয়েই জনপ্রিয় হন এ পরিচালক। সূত্র : ডিএনএ

Advertisement