Beta

নানা বলেছেন ‘মেয়ের মতো’, হাসলেন তনুশ্রী!

০১ অক্টোবর ২০১৮, ১৫:৪৪

অনলাইন ডেস্ক
বলিউড অভিনেতা তনুশ্রী দত্ত ও নানা পাটেকার। ছবি : সংগৃহীত

সাবেক ভারতসুন্দরী ও ‘আশিক বানায়া আপনে’ খ্যাত নায়িকা তনুশ্রী দত্ত ভারতের বিনোদন জগতে ঝড় তুলেছেন। জনপ্রিয় বর্ষীয়ান অভিনেতা নানা পাটেকারের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলে এখন আলোচনার কেন্দ্রে তিনি।

হলিউডে যখন ‘হ্যাশট্যাগ মি টু’ আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে, ঠিক তখন নীরব ছিল বি-টাউন। তনুশ্রীর অভিযোগের পর বলিউডেও চলছে ‘মি টু’ ঝড়। অনেকেই বলছেন, এখনই উচিত বিষয়টিকে আন্তরিকভাবে নেওয়া।

তনুশ্রীর যৌন হেনস্তার বিস্ফোরক অভিযোগের পর অগ্রজ অভিনেতা নানা পাটেকার বলেছেন, শিগগিরই তিনি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করবেন। আইনগত ব্যবস্থাও নেবেন তিনি। যদিও এসব তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছেন তনুশ্রী। বলেছেন তিনিও দেখে নেবেন। নানা এখন রাজস্থানের জয়সালমারে শুটিংয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। সেখান থেকে মুম্বাইয়ে ফিরে তিনি সাংবাদিকদের সব খুলে বলবেন।

নানা বলেছেন, ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে তিনি সব প্রশ্নের উত্তর দেবেন। কারণ তিনি ভয় পান না এবং এ ব্যাপারে তাঁর কিছুই লুকানোর নেই।

নানা পাটেকারের সংবাদ সম্মেলনের আয়োজনের খবর শুনে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তনুশ্রী দত্ত। নানাকে তিনি ‘মহান অভিনেতা’ সম্বোধন করে খোঁচা দিয়ে বলেছেন, নিশ্চয়ই সেই সম্মেলনে নানা ‘পুরস্কারজয়ীর ভূমিকায়’ অভিনয় করবেন। তনুশ্রী আরো বলেছেন, প্রত্যেকের উচিত নানার সংবাদ সম্মেলনে যাওয়া। কারণ, নানার অভিনয় দেখার সুযোগ যেন কেউ না হারান।

যৌন হেনস্তার অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে নানা পাটেকার বলেছেন, তিনি তনুশ্রী দত্তকে ‘নিজের মেয়ের মতো’ দেখতেন।

তনুশ্রী বলেন, ও কথা শুনে তাঁর হাসি পেয়েছে। মেয়ে ডাকছেন, অথচ তাঁর কর্মকাণ্ড ছিল ঠিক উল্টো। তিনি আরো বলেন, পরিস্থিতি বদলায়নি। কারণ নানা এখনো নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করছেন এবং তাঁর অভিযোগকে পাত্তাই দিচ্ছেন না।

২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির শুটিং চলাকালে নানা যৌন হেনস্তা করেন বলেই তনুশ্রীর অভিযোগ। ওই ছবির নায়ক ছিলেন ‘সিরিয়াল কিসার’ ইমরান হাশমি। অভিযোগের পর, তনুশ্রীর গাড়িতে হামলা হয়েছিল। এখন সেই হামলার ভিডিও অন্তর্জালে ভাইরাল। অনেকেই বলছেন, তনুশ্রীর অভিযোগ ‘সম্পূর্ণ’ মিথ্যা নয়।

তনুশ্রী দত্ত-নানা পাটেকার বিতর্কে সরগরম বলিউডপাড়া। বেশ কয়েকজন তারকা তনুশ্রীর ‘লড়াইকে’ সমর্থন দিলেও নানা পাটেকারের সমর্থনে এগিয়ে এসেছেন কেউ কেউ। অনেকে আবার মন্তব্য করতে চাইছেন না। অনেকে বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছেন।

শিল্পা শেঠি এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘ঠিক কী হয়েছে, আমি জানি না। কিন্তু নারী হোক আর পুরুষ, যে-ই হোক; কাজের জায়গায় কেউ কোনো ধরনের সহিংসতা বা চাপের শিকার হতে পারে না। খুবই বেদনা অনুভব করছি, তাঁকে (তনুশ্রী) কী পরিমাণ মানসিক আঘাতের ভেতর দিয়ে যেতে হয়েছে।’

অগ্রজ অভিনেত্রী ডিম্পল কাপাডিয়া বলেছেন, নানা পাটেকারের ‘অন্ধকার দিক’ তিনি দেখেছেন। তবে ‘অসাধারণ অভিনেতা’ বলে তাঁকে ক্ষমা করে দেওয়া যায়।

ইউটিউবে এনটিভির জনপ্রিয় সব নাটক দেখুন। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের চ্যানেলটি:

Advertisement