Beta

অভিবাসীদের বাড়তি টাকা ফেরত

০৮ মার্চ ২০১৫, ১১:৫০

ফিচার ডেস্ক
এই দুই শিক্ষার্থী টিউশন ফি হিসেবে দেওয়া বাড়তি অর্থ ফিরে পেয়েছেন। ছবি : হাফিংটন পোস্ট

যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধভাবে বসবাসকারী ১৫০ অভিবাসী শিক্ষার্থীকে কয়েক হাজার ডলার ফিরিয়ে দিয়েছে সিটি ইউনিভার্সিটি অব নিউইয়র্ক। সিইউএনওয়াই ড্রিমার্স নামে ছাত্রদের একটি সংগঠন গত বছর দাবি করে তাদের মতো অবৈধ অভিবাসীদের কাছ থেকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বাড়তি অর্থ নিচ্ছে, প্রতি সেমিস্টারে এই বাড়তি অর্থের পরিমাণ প্রায় চার হাজার ডলার।

বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৪টি ক্যাম্পাসে তদন্ত শেষে বাড়তি অর্থ ফিরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করে তারা।

যুক্তরাষ্ট্রের আরো ১৯টি রাজ্যের মতো নিউইয়র্কেও অবৈধ অভিবাসীদের জন্য তুলনামূলক কম খরচে লেখাপড়ার ব্যবস্থা রয়েছে। ২০০২ সালে এ সংক্রান্ত একটি আইন পাস করা হয়। আইন অনুযায়ী যেসব অভিবাসী নিউইয়র্কের স্কুলে দুই বছর বা তার বেশি সময় লেখাপড়া করেছেন অথবা নিউইয়র্ক থেকে জিইডি করেছেন তাঁরা ‘ইন-স্টেট’ শিক্ষার্থী হিসেবে তুলনামূলক কম খরচে পড়ার সুযোগ পাবেন।

কিন্তু অনেক অবৈধ অভিবাসীই বিষয়টি জানেন না। আবার অনেকে জেনেও তাঁদের অভিবাসনের ব্যাপারে মুখ খোলেন না। কারণ বৈধ কাগজপত্র না থাকার বিষয়টি প্রকাশ করলে তাঁদের যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দেওয়া হতে পারে। এ কারণে তাঁরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে সুবিধা নেওয়া থেকে বিরত থাকেন।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় অভিবাসন আইন কেন্দ্রের সিনিয়র অ্যাটর্নি তানিয়া ব্রোডার বলেন, ‘অভিবাসন প্রক্রিয়া এবং নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করার ব্যাপারে বরাবরই অভিবাসীদের মধ্যে দ্বিধা কাজ করে।’

সিটি ইউনিভার্সিটিতে বর্তমানে দুই লাখ ৭৪ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী, ইন-স্টেট শিক্ষার্থীরা অন্য শিক্ষার্থীদের তুলনায় প্রতি সেমিস্টারে তিন হাজার ডলার কম খরচে লেখাপড়া করতে পারেন।

২০ বছর বয়সী ইকুয়েডরের নাগরিক ফ্রেডি ভিকুনা অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে বাস করছেন। তিনি জানান, গত বছরের শেষ দিকে বিশ্ববিদ্যালয় তাঁকে চার হাজার ৫০০ ডলার ফিরিয়ে দেয় এবং গত দুই সপ্তাহ আগে আরো তিন হাজার ডলার ফেরত পান তিনি।

কম্পিউটার প্রকৌশলের এই শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমি বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে দিতে চাচ্ছিলাম। এখানে লেখাপড়ার খরচ অনেক বেশি।’

নিউইয়র্কের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়েও অবৈধ অভিবাসীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ নেওয়ার বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে। যেসব শিক্ষার্থী ইন-স্টেট শিক্ষার্থীর মর্যাদা পাবেন তাদের অতিরিক্ত অর্থ ফিরিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে নিউইয়র্কের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে।

Advertisement