Beta

রাবির সাংবাদিকতা বিভাগে সাত মাসেও হয়নি ফল, প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি

৩১ জুলাই ২০১৯, ২২:২৪

রাবি সংবাদদাতা
পরীক্ষা শেষে দীর্ঘ সাত মাস পার হলেও ফল প্রকাশ না হওয়ায় এর প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। ছবি : এনটিভি

পরীক্ষা শেষে দীর্ঘ সাত মাস পার হলেও ফল প্রকাশ না হওয়ায় এর প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। আজ বুধবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা বিভাগের অফিস কক্ষের সামনে এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। আগামীকাল বৃহস্পতিবারের মধ্যে খাতা মূল্যায়ন না হলে আবারো আন্দোলনে নামবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিভাগের স্নাতক তৃতীয় ও চতুর্থ এবং স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরা ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিভাগের অফিস কক্ষের সামনে অবস্থান নেয়। পরে প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা তাদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে আন্দোলনে অংশ নেয়। এ সময় তারা ‘সান্ধ্য কোর্সে এক মাস, আমাদের আর কত মাস?’, ‘পার হয়েছে সাত মাস, এক দফা এক দাবি রেজাল্ট চাই রেজাল্ট চাই’, ‘পরিবারের কান্না রেজাল্ট কেন দেয় না’ ইত্যাদি স্লোগান দিতে থাকেন।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান ঘটনাস্থলে এসে শিক্ষকদের সঙ্গে সভা করেন। সভা থেকে বের হয়ে বিভাগের সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান সাত দিনের মধ্যে ফলপ্রকাশের আশ্বাস দিলেও শিক্ষার্থীরা আন্দোলন থেকে সরে আসেনি। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ফলপ্রকাশ করা হবে এ মর্মে লিখিত ঘোষণা না দিলে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমি গিয়ে শিক্ষক ও আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেছি। এক শিক্ষক খাতা জমা না দেওয়ায় ফলপ্রকাশে বিলম্ব হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের সাতদিনের মধ্যে ফল প্রকাশের কথা জানানো হলে শিক্ষার্থীরা মেনে নেয়নি এজন্য বিভাগের শিক্ষকদের দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলেছি। শিক্ষকরা এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।’

বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ১৩ নভেম্বর বিভাগের প্রথম বর্ষের (বর্তমান দ্বিতীয়) লিখিত পরীক্ষা শুরু হয়ে ১০ ডিসেম্বর শেষ হয়। ১১ নভেম্বর থেকে ৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলে দ্বিতীয় বর্ষের (বর্তমানে তৃতীয়) লিখিত পরীক্ষা। ৮ নভেম্বর শুরু হয়ে ১৭ ডিসেম্বর শেষ হয় তৃতীয় বর্ষের এবং ১৪ নভেম্বর শুরু হয়ে চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি শেষ হয় চতুর্থ বর্ষের (বর্তমান মাস্টার্স) লিখিত পরীক্ষা। গত ১৭ জুলাই প্রথম বর্ষের (বর্তমান দ্বিতীয় বর্ষ) ফল প্রকাশ করা হলেও এখনও অন্যান্য বর্ষের ফল প্রকাশিত হয়নি। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশ-১৯৭৩ এ ৬০ দিনের মধ্যে বিভাগগুলোর ফল প্রকাশের নির্দেশনা রয়েছে।

Advertisement