Beta

ঢাবির অধ্যাপক ফারুকের পাশে থাকার ঘোষণা শিক্ষার্থীদের

১৪ জুলাই ২০১৯, ২২:৪৮

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা
আজ রোববার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে মানববন্ধন করা হয়। ছবি : এনটিভি

দুধ নিয়ে গবেষণা করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধ্যাপক ড. আ ব ম ফারুকের বিরুদ্ধে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিন যে হুমকি দিয়েছেন তার প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তাঁরা অধ্যাপক ফারুকের পাশে থাকার ঘোষণা দিয়েছেন।

আজ রোববার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে এই ঘোষণা দেন তাঁরা। সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক এবং ডাকসুর নেতারাও অংশ নেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ফারুক স্যার একজন দায়িত্ববান মানুষ হিসেবে  দুধে ক্ষতিকর অ্যান্টিবায়োটিক থাকার কথা জনগণকে জানিয়েছেন, যার জন্য তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছেন সরকারের একজন কর্মকর্তা। কিন্তু তাঁর পাশে ঢাবি প্রশাসন, শিক্ষক সমিতি বা অন্যরা দাঁড়াচ্ছে না। আমরা এই মহান মানুষটির পাশে আছি। একইসঙ্গে যারা তাঁকে হুমকি দিচ্ছে, তাদের সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

মানববন্ধনে পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. আবদুর জাহের বলেন, যুগে যুগে প্রতিবাদী মানুষ আমাদের পাশে দাঁড়ায়। আমাদের ফারুক স্যার, তাই করেছেন। কোনো গবেষণা ভুল প্রমাণ করতে হলে আরেকটা গবেষণা দিয়ে ভুল প্রমাণ করতে হয়। কিন্তু প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তাঁর বিরুদ্ধে কোনো রকম প্রমাণ ছাড়াই মামলার হুমকি দিচ্ছেন। যাকে পুরস্কার দেওয়া উচিত তাঁর বিরুদ্ধে সমালোচনা হচ্ছে।

অধ্যাপক আবদুর জাহের আরো বলেন, আগে মানুষের স্বাস্থ্য ভালো ছিল। এখন বাংলাদেশের এমন কোনো খাদ্য নেই যা নিরাপদ। আমরা বিষ খাচ্ছি, ভেজাল খাচ্ছি। কিন্তু এর বিরুদ্ধে যে কথা বলবে তাকে হুমকির মুখে পড়তে হবে।

ওয়াসার দূষিত পানির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আলোচনায় আসেন মিজানুর রহমান। তিনিও এই মানববন্ধনে বক্তব্য দেন। তিনি বলেন, মানুষ এতটা বর্বর হয় কী করে? যে খাদ্য নিয়ে গবেষণা করে তাঁর বিপক্ষে দাঁড়ায়। যেটা জনস্বাস্থের জন্য হুমকি তার জন্য কি আমরা ছয় মাস অপেক্ষা করব? যারা ফারুক স্যারের বিরুদ্ধে দাঁড়াচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে যেখানে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা সেখানে ফারুক স্যারকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ক্যাফেটেরিয়া বিষয়ক সম্পাদক বি এম লিপি আক্তার বলেন, খাবারের জায়গা থেকে কোনো আপস করার সুযোগ নেই। খাবার বেঁচে থাকার জন্য প্রধান উপাদান। একটি গবেষণার মূল বিষয় হচ্ছে ত্রুটিগুলো তুলে ধরে তা রিকভার করা। আমার মনে হয়, স্যার তাই করেছেন। নিরাপদ খাদ্যের ব্যাপারে আপা (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) যেখানে সচেতন সেখানে তারা কারা যারা এই নিরাপদ খাদ্যের ব্যাপারে স্যারের বিরুদ্ধে দাঁড়ায়।

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডা. সুব্রত ষোষ, ডাকসুর সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আসিফ তালুকদার, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সানোয়ারুল হক সানী, ডাকসু নেতা তিলোত্তমা শিকদারসহ শতাধিক শিক্ষক ও শিক্ষার্থী।

Advertisement