রাবির ভর্তি পরীক্ষায় থাকছে এমসিকিউ

০৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:২৭

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে নেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সম্মেলন কক্ষে ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত কমিটির সভায় চূড়ান্তভাবে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিষয়টি এনটিভি অনলাইনকে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা।

এর আগে ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত উপকমিটির সভায় এমসিকিউ পদ্ধতি বাতিলের সুপারিশ করা হলেও শেষ পর্যন্ত তা বাতিল করা হয়নি।

অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা জানান, চলতি বছরে পাঁচটি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি ইউনিটে অংশ নিতে পারবেন ৩২ হাজার জন করে শিক্ষার্থী। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের এমসিকিউ পদ্ধতিতে উত্তীর্ণ হতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তবে আগামী বছর থেকে লিখিত ও এমসিকিউ একইসাথে দুই পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে। যেকোনো পরীক্ষার্থী দ্বিতীয়বারও পরীক্ষার সুযোগ পাবেন বলে জানান উপ-উপাচার্য।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, ভর্তি পরীক্ষায় প্রাথমিকভাবে আবেদনের জন্য শিক্ষার্থীকে মানবিক শাখার ক্ষেত্রে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ ও মোট জিপিএ ৭.৫০, ব্যবসায় শিক্ষা শাখার ক্ষেত্রে চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ ও মোট জিপিএ ৮.০০ এবং বিজ্ঞান শাখার ক্ষেত্রে চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ ও মোট জিপিএ ৮.৫০ থাকতে হবে।

আগামী ২২ ও ২৩ অক্টোবর রাবিতে এ ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।