Beta

গ্রেপ্তারের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গাসহ দুজন নিহত

১২ অক্টোবর ২০১৯, ১০:৪১ | আপডেট: ১২ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৩৮

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় কথিত বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গাসহ দুজন নিহত হয়েছেন বলে দাবি করছে পুলিশ। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, নিহতরা মাদক কারবারি ছিলেন।

আজ শনিবার ভোর ৪টার দিকে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের পর্যটন বাজারের উত্তরে মালির পাহাড়ের পাদদেশে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন টেকনাফ সদর ইউনিয়নের হাতিয়ার ঘোনা এলাকার আহাম্মদ হোসেন (৪৫) ও নয়াপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আবদুর রহমান (৪৬)।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশের ভাষ্যমতে, গতকাল শুক্রবার রাতে অভিযান চালিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক কারবারি ও ছয়টি মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি আহমদ হোসেন ও আবদুর রহমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে থানায় নিয়ে তাঁদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

‘তাঁদের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে আজ ভোরে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধারে পর্যটন বাজারের উত্তরে মালির পাহাড়ের পাদদেশে অভিযানে যায় পুলিশ। সেখানে পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি করে। উভয়পক্ষের গোলাগুলিতে আসামি আহাম্মদ হোসেন ও আবদুর রহমান গুলিবিদ্ধ হন।’

পরে তাঁদের দুজনকে উদ্ধার করে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে চিকিৎসক তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন বলে দাবি করেন ওসি প্রদীপ কুমার।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো দাবি করেন, গোলাগুলির ঘটনায় পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বাবুল, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) অহিদ ও কনস্টেবল মালেকুল গুলিবিদ্ধ হন।

ঘটনাস্থল থেকে দুটি এলজি, আটটি কার্তুজ ও পাঁচ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয় বলেও দাবি করেন ওসি।

লাশ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা করা হয়েছে বলে জানান ওসি প্রদীপ কুমার।

Advertisement