Beta

‘দেশের পক্ষে কথা বলার কারণে আবরারকে হত্যা’

১১ অক্টোবর ২০১৯, ২৩:২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম। ছবি : এনটিভি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেছেন, ‘ষড়যন্ত্র আবরার ফাহাদকে নিয়ে না; ষড়যন্ত্র হচ্ছে এদেশের ভূখণ্ডকে নিয়ে। আবরারকে হত্যা করার মাধ্যমে এদেশের মানুষকে হত্যা করা হয়েছে, দেশের পতাকাকে হত্যা করা হয়েছে। দেশের পক্ষে কথা বলার কারণে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে হত্যা করা হয়েছে।’

আজ শুক্রবার জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে আয়োজিত ‘ভারতের সঙ্গে করা চুক্তি বাতিল, আবরার হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার দাবিসহ চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি’ নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি।

মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, ‘বুয়েট ছাত্র আবরার ফেসবুকে নিজের মত লেখেননি তিনি ১৬ কোটি মানুষের মতামত তুলে ধরেছিলেন। এ দেশের ভূখন্ড    নিয়ে তিনি তার মত তুলে ধরেন। এ কারণে তাকে শহীদ হতে হয়েছে। আবার এই হত্যাকারীদের একজনকে ধরতে দেরি করা হলো, এজাহারে তার নাম রাখা হয়নি কেন? যদিও  অবশেষে গ্রেপ্তার করা হলো।’

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রেজাউল করিম বলেন, ‘আপনিতো বলেছেন বিচার হবে। এখন আসামি, সাক্ষী সবাই উপস্থিত। বিশেষ কোর্ট করে এই হত্যাকারীদের আগামী ১৫ দিনের মধ্যে বিচার কার্য সম্পন্ন করেন।

ভারতের সঙ্গে করা চুক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা তিস্তা, ফারাক্কার সমাধান পাইনি আজও। এর মধ্যে ফেনির পানি দিতে চুক্তি করা হলো। ভারতের সঙ্গে করা সকল চুক্তির মাধ্যমে দেশে বিক্রির ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। এসব চুক্তি বাতিল চাই পাশাপাশি তিস্তা, ফারাক্কার সমাধান না হওয়া পর্যন্ত ভারতে এক ফোটা পানি দেওয়া হবে না, দিতে দেব না।’

ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর শাখা সভাপতি ইমতিয়াজ আলমের সভাপতিত্বে আয়োজিত সমাবেশে মহানগর ও কেন্দ্রীয় নেতারা বক্তব্য রাখেন।

সমাবেশ শেষে বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেট থেকে শুরু হয়ে পল্টন, দৈনিক বাংলা মোড় প্রদক্ষিণ করে। মিছিলের নেতৃত্ব দেন মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম।

Advertisement