Beta

মোবাইল ফোন নেওয়ার অভিযোগে ঘুমন্ত দাদিকে গলা কেটে হত্যা!

২৭ আগস্ট ২০১৯, ১৮:৫৫

নরসিংদীতে দাদিকে হত্যার অভিযোগে আটক কলেজছাত্র মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু। ছবি : সংগৃহীত

নরসিংদীতে মোবাইল ফোনসেট নেওয়ার অভিযোগে ঘুমন্ত অবস্থায় আপন দাদিকে গলা কেটে হত্যা করেছেন কলেজপড়ুয়া নাতি। হত্যার পর দাদির স্বর্ণালংকার ও এক লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যান তিনি। পরে অবশ্য তাকে ও তার বাবাকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ মঙ্গলবার সকাল ৯ টার দিকে সদর থানা পুলিশ চিনিশপুর গ্রামের পশ্চিমপাড়া এলাকায় নিজ বসত ঘর থেকে সাজেদা বেগমের (৬৫) মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় আটক হয়েছেন নিহতের ছেলে আইন উদ্দিন (৩৮) ও নাতি মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু (১৮)। সাজেদা বেগম ওই গ্রামের মৃত মতিউর রহমানের স্ত্রী। আটক রিজু নরসিংদী সরকারি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র।  

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানায়, দুই দিন আগে রিজুর মোবাইল ফোন হারিয়ে যায়। এ নিয়ে রিজু ও তার মা ফজিলা খাতুন বৃদ্ধা সাজেদা বেগমকে সন্দেহ করেন। এ নিয়ে পরিবারে লোকদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এরপর ছোট মেয়ের সঙ্গে আজ ঢাকায় আসার কথা ছিল সাজেদা বেগমের। কিন্তু আজ ভোরেই ঘুমন্ত অবস্থায় তাঁর গলা কেটে হত্যা করেন নাতি রিজু। পরে দাদির ব্যাগে থাকা এক লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যান তিনি।

সকালে সাজেদা বেগমকে ঘরে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে নিহত বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করে এবং ময়নাতদন্তের জন্য লাশ সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় নিহত নারীর ছেলে আইন উদ্দিন ও নাতি মঞ্জুরুল ইসলাম রিজুকে আটক করা হয়েছে।

Advertisement