Beta

ভৈরবে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে অনুদান

২২ আগস্ট ২০১৯, ০০:৪৮

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১৮০ জনের মধ্যে ১৮ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়েছে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার কার্যালয়। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে অনুদানের চেক তুলে দেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. সায়দুল্লাহ মিয়া। ছবি : এনটিভি

বাংলাদেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ১৮০ জনের মধ্যে ১৮ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়েছে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার কার্যালয়। আজ বুধবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই অনুদানের চেক তুলে দেন প্রধান অতিথি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ মো. সায়দুল্লাহ মিয়া।

ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইসরাত সাদমীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা রিফফাত জাহান ত্রপা।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান সায়দুল্লাহ মিয়া বলেন, ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত উন্নত এক দেশ গঠনে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। প্রত্যেক পেশাজীবী জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে সরকার নানাবিধ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে আজকের এই অনুদান প্রদান।

চেয়ারম্যান বলেন, কামার, নাপিত ও মুচি পেশায় নিয়োজিত আজকের সুবিধাভোগী যারা অনুদানের টাকা পাবেন, আপনারা নিজ নিজ পেশার উন্নয়নে সেটি কাজে লাগিয়ে নিজেদের জীবনমান উন্নয়নে ভূমিকা রাখবেন। সরকারের প্রত্যাশা, এই অনুদানের টাকা আপনারা অনুৎপাদনশীল কাজে খরচ না করে নিজেদের পেশার উন্নয়নে ব্যয় করবেন।

সভাপতির বক্তব্যে ইউএনও ইসরাত সাদমীন বলেন, উন্নত দেশ গঠন একা সরকারের কাজ নয়। সমাজের প্রত্যেকটি মানুষ, পেশাজীবীকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করে যেতে হবে। প্রতিটি প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমানের উন্নয়ন হলে, কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি পেলে-তবেই উন্নত এক সমাজ ও দেশের শীর্ষে আমরা পৌঁছাতে পারব।

Advertisement