Beta

নার্ভাস হবেন না, আপনাদের সঙ্গে আছি : মেয়রদের উদ্দেশে নাসিম

২৮ জুলাই ২০১৯, ২০:১৯ | আপডেট: ২৮ জুলাই ২০১৯, ২০:২৬

নিজস্ব সংবাদদাতা
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম আজ রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত গোলটেবিল আলোচনায় বক্তব্য দেন। ছবি : ফোকাস বাংলা

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলার মতো মনোভাব নিয়ে কাজ করার পরাশর্ম দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম। ডেঙ্গু ও গুজব মোকাবিলায় আজ রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে পেশাজীবী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে ১৪ দল আয়োজিত গোলটেবিল আলোচনায় তিনি এ পরামর্শ দেন।

আলোচনায় মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘সিটি করপোরেশনের মেয়রদের বলব, আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি। নার্ভাস হবেন না। অহেতুক, অযৌক্তিক কথা না বলে ডেঙ্গুর উৎস, মশা দমনে সমন্বিতভাবে কাজ করুন। যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলার মনোভাব নিয়ে কাজ করুন। আমরা অবশ্যই ডেঙ্গু মশা নির্মূল করতে পারব। আপনারা সাহস করে, কম কথা বলে ডেঙ্গু জ্বরের কারণ এডিস মশার উৎস ধ্বংস করতে কাজ করুন। একটি সমন্বিত কমিটি করে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে কাজ করা যেতে পারে। প্রয়োজনে সব আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীকে মশার উৎস ধ্বংস করতে কাজে লাগান। এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন।’

১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, গুজব রটানোর সঙ্গে যারা জড়িত শক্তভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বলব, গুজব রটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দ্রুত তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। আমরা কোনো দিনও সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি নষ্ট হতে দেব না।

এ সময় জাসদের সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, সরকার ও প্রশাসন সজাগ আছে। ডেঙ্গু নিয়ে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। শেখ হাসিনার সরকার জঙ্গি দমনে সফল হয়েছে, ডেঙ্গু দমনেও সফল হবে। গুজবে সাময়িক কুয়াশা তৈরি হতে পারে, কিছু মানুষের ক্ষতি হতে পারে কিন্তু গুজব রটনাকারীরা সফল হবে না। রাজাকার ও জঙ্গিবাদ সৃষ্টির কারখানায় গুজবের সৃষ্টি হচ্ছে। দেশের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুও নিখোঁজ হয়নি। যদি কেউ প্রমাণ দিতে পারে নিখোঁজ হয়েছে, আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব। এডিস মশার কামড়ে ডেঙ্গু জ্বর হলেও প্রিয়া সাহার কারণে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট হবে না।

সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া বলেন, একটি মহল গুজব ছড়িয়ে দেশের অগ্রগতিকে নস্যাৎ করতে চায়, স্থিতিশীলতাকে নষ্ট করতে চায়, মানুষকে আতঙ্কগ্রস্ত করতে চায়। প্রিয়া সাহাকে অর্গানাইজড ওয়েতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আমেরিকার রাষ্ট্রপতির সঙ্গে অন্য দেশের রাষ্ট্রপ্রধান গেলে সহজে দেখা করতে পারে না। অথচ প্রিয়া সাহা এত সহজে দেখা করতে পারল?

এ সময় ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির বলেন, জামায়াত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম দিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। জামায়াতের এই অপপ্রচার বন্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। জামায়াতকে অবিলম্বে নিষিদ্ধ করতে হবে। এটা করতে না পারলে ষড়যন্ত্র বন্ধ হবে না। জামায়াতকে যারা পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতা ও খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নির্মল রোজারিও বলেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি মহামারী আকার ধারণ করার দিকে যাচ্ছে। মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় একটি কমিটি গঠন করা দরকার। এই পরিস্থিতি যাতে আগামীতেও আর না হয় সে জন্যও প্রস্তুতি নিতে হবে।

আলোচনায় আরো অংশ নেন আওয়ামী লীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, সাংবাদিক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, আব্দুল কাইয়ুম মুকুল, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদ নেতা অধ্যাপক নিম চন্দ্র ভৌমিক ও প্রকৌশলী নেতা নুরুজ্জামান।

Advertisement