Beta

নেত্রকোনায় শিয়াল মারার ফাঁদে প্রাণ গেল দাদি-নাতির

২১ জুলাই ২০১৯, ২২:০৭

নেত্রকোনায় শিয়াল মারার পাতা ফাঁদে প্রাণ গেল দাদি-নাতির। শিয়ালের কাছ থেকে হাঁস-মুরগি বাঁচাতে খামারে পাতা বৈদ্যুতিক ফাঁদে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এ মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে সদর উপজেলার আমতলা ইউনিয়নের বলনিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন বলনিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী শরীফা আক্তার (৪৮) ও তাঁর নাতি আরমান হোসেন (৮)।

নেত্রকোনার মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বিল্লাল হোসেন জানান, গ্রামের বাড়িতে একটি ছোট ঘরে খামার করে হাঁস-মুরগি পালন করত পরিবারটি। শিয়াল, বন বিড়ালসহ কিছু বন্যপ্রাণী প্রায়ই হানা দিয়ে খামারের হাঁস-মুরগি খেয়ে ফেলত। তাই বন্যপ্রাণীর হামলা ফেরাতে খামারের চারদিকে বিদ্যুতায়িত করে ফাঁদ পেতে রাখা হয়।

শনিবার রাতে খামারে হাঁস-মুরগি ঠিকঠাক আছে কি-না দেখতে গেলে অসাবধানতাবশত শিশু আরমান বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। এ সময় তাকে বাঁচাতে গিয়ে তার দাদিও গুরুতর আহত হন। পরিবারের লোকজন তাদের উদ্ধার করে দ্রুত নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নেত্রকোনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এস এম আশরাফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

অপরদিকে জেলার কেন্দুয়ায় বিদ্যুস্পৃষ্ট হয়ে জাকারিয়া (২৮) নামের এক মৎস্য খামারির মৃত্যু হয়েছে। মৃত ব্যক্তি উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের এরিরচর গ্রামের মাওলানা নূরুল ইসলামের ছেলে।

কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান জানান, শনিবার সকালে মৎস্য খামারি জাকারিয়া বাড়ি থেকে খামারে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার চেষ্টা চালান। এ সময় অসাবধানতাবশত বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হন তিনি। তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

Advertisement