Beta

গেটম্যান ঘুমিয়ে, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন উপজেলা চেয়ারম্যান

২০ জুলাই ২০১৯, ২২:২৯ | আপডেট: ২০ জুলাই ২০১৯, ২২:৩১

পাবনার চাটমোহর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল হামিদ মাস্টার। ছবি : সংগৃহীত

অল্পের জন্য ট্রেন দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলেন পাবনার চাটমোহর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল হামিদ মাস্টার। রেল গেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত গেটম্যান ঘুমিয়ে থাকায় এ দুর্ঘটনার ঘটার আশঙ্কা ছিল।

চাটমোহর উপজেলার গুয়াখড়া রেল ক্রসিংয়ে গতকাল শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। রেল গেটের দায়িত্বে থাকা গেটম্যানের নাম সালাহ উদ্দিন। তিনি ঈশ্বরদী থেকে ঢাকা রেলপথের ই/২২ নম্বর গেটে কর্মরত।

উপজেলা চেয়ারম্যান হামিদ মাস্টার বলেন, ‘শুক্রবার বিকেল ৩টার পরে চাটমোহর পৌর শহর থেকে পার্শ্বডাঙ্গা ইউনিয়নে একটি অনুষ্ঠানে যোগদানের উদ্দেশে উপজলা পরিষদের গাড়িতে চড়ে যাচ্ছিলাম। পথে গুয়াখড়া গোরস্থান সংলগ্ন রেলক্রসিংয়ে গেট খোলা থাকায় আমরা গাড়ি নিয়ে রেল ক্রসিং পার হওয়ার প্রস্তুতি নেই। এ সময় একজন মোটরসাইকেল চালক সতর্ক করে জানান, এখনই ট্রেন আসবে। এ সময় ওই ব্যক্তির সতর্কতায় আমার গাড়ির ড্রাইভার সঙ্গে সঙ্গে গেটের সামনে ব্রেক করলে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া দ্রুতগামী চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনটি রেল গেট অতিক্রম করে। ট্রেন চলে যাওয়ার পরে আমি এই গেটের দায়িত্বে থাকা গেটম্যানের সন্ধান করি। অনেক খোঁজাখুজির পর জানতে পারি পাশের রেল বিভাগের তৈরি করা গেটম্যানের জন্য নির্মিত ঘরে তিনি ঘুমাচ্ছেন। আমি সেখানে গিয়ে গেটম্যানকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে জিজ্ঞাসা করি, তিনি কেন দায়িত্ব পালন না করে ঘুমাচ্ছিলেন। তিনি আমার প্রশ্নের কোনো উত্তর দিতে পারেননি।

এদিকে, এ ঘটনার বিষয়ে পারমানেন্ট ওয়ে ইন্সপেক্টর (পিডাব্লিউআই) সিরাজগঞ্জ মো. পলাশ হোসেন বলেছেন, ‘ঘটনাটির বিষয়ে আমার জানা ছিল না। আমি বিষয়টি জেনে অবশ্যই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

Advertisement